Goal Setting Mistakes লক্ষ্য নির্ধারন এবং পূরণ করতে চাইলে এই ৫টি ভুল করা যাবে না

Goal Setting Mistakes লক্ষ্য নির্ধারন এবং পূরণ করতে চাইলে এই ৫টি ভুল করা যাবে না

লক্ষ্য নির্ধারন এবং পূরণ করতে চাইলে এই ৫টি ভুল করা যাবে না

ব্যবসায়িক এবং ব্যক্তিগত জীবনে লক্ষ্য নির্ধারনের গুরুত্ব আমরা কম বেশী জানি। আপনি জেনে অবাক হবেন, মাএ ৮% মানুষ তার নিজের সেট করা লক্ষ্য বাস্তবায়ন করতে পারে এবং বাকি ৯২% মানুষ তার লক্ষ্যে পৌঁছাতে পারে না। এই লক্ষ্যে পৌঁছাতে না পরার বড় কারন হল লক্ষ্য নির্ধারনে ভুল করা। আপনি যদি আপনার লক্ষ্য নির্ধারনেই ভুল করেন তবে এই ফলাফলও ভুল আসবে এটাই স্বাভাবিক। আসুন জেনে নেই লক্ষ্য নির্ধারন এবং পূরণ করতে চাইলে কোন ৫টি ভুল করা যাবে না।

#১। অনেকগুলো লক্ষ্য নির্ধারণ করা।

যখন আপনি একসাথে অনেক লক্ষ্য নির্ধারণ করবেন তখন কোন লক্ষ্যই সঠিকভাবে পূরণ করতে পারবেন না। যখন আপনার চোখে অনেকগুলো লক্ষ্য থাকবে তখন আপনি দ্বিধাদ্বন্দ্বের মধ্যে পরে যাবেন।

তখন মনে হবে কোনটা আগে করব, কোনটা পরে করব, ফলে দেখা যায় কোনটাই সঠিক ভাবে করা হয় না। তাই অনেকগুলো লক্ষ্য নির্ধারণ না করে একটি বড় লক্ষ্য এবং ২/৩ ছোট লক্ষ্য নির্ধারণ করার চেষ্টা করুন।

#২। লক্ষ্যগুলো লিখে না রাখা।

আপনার লক্ষ্য যখন আপনি লিখে রাখবেন না তখন তা আপনার ব্রেন থেকে আস্তে আস্তে হালকা হয়ে যাবে।

অনেকদিন আগে করা একটি লক্ষ্য যদি মনে মনে রেখে দেন তবে তা বাস্তবরূপ দেওয়া কষ্ট হয়ে যাবে। আপনি কি অর্জন করতে চান তা অবশ্যই লিখে রাখতে হবে এবং চোখের সামনে সেই লেখা থাকতে হবে। এর ফলে আপনি সেই লক্ষ্যের জন্য যথেষ্ট কাজ করার উৎসাহ খুঁজে পাবেন।

#৩। লক্ষ্যগুলোকে অগ্রাধিকার না দেওয়া।

আপনার জন্য সারা দিনের সকল কাজ এক রকম নয়। মানে সকল কাজের গুরুত্ব কখনই এক হতে পারে না।

ধরুন, আপনি জানেন আপনার জন্য এখন কোন কাজটি গুরুত্বপূর্ণ, এই গুরুত্ব বুজেও অন্য একটি কম গুরুত্বপূর্ণ কাজ করা। আপনি যদি নির্ধারিত সময়ের মধ্যে আপনার লক্ষ্য পূরণ করতে চান তবে আপনার সময়কে কার্যকর উপায়ে কাজে লাগাতে হবে।

অন্যরা যা এখন পড়ছে – ১০টি অভ্যাস যা ধনী ও গরিবের মধ্যে মূল পার্থক্য করে দেয়

#৪। এমন লক্ষ্য নির্ধারণ করেছেন যার প্রতি আপনার আবেগ নেই।

আবেগ না থাকলে কোন লক্ষ্যই পূরণ করতে পারবেন না। এই ক্ষেএে যেই ভুলটি হয় তা হলো অন্যকে দেখে নিজের লক্ষ্য নির্ধারণ করা।

ধরুন, আপনার কোন এক বন্ধু ইংরেজী শেখার জন্য একটি কোচিং সেন্টারে ভর্তি হয়েছে এবং তার মধ্যে শেখার আগ্রহ আছে। এখন আপনি তাকে ফলো করে সেই কোচিং এ ভর্তি হয়ে গেলেন এর ফলে আপনার মধ্যে আবেগ না থাকলে আপনি সফল হতে পারবেন না। তাই এমন বিষয়ে লক্ষ্য নির্ধারণ করতে হবে যেখানে আপনার আবেগ আছে।

#৫। খুব তাড়াতাড়ি ফলাফল চাওয়া।

লক্ষ্য পূরণে এই ভুল বেশীর ভাগ মানুষই করে থাকে। আপনি আপনার জন্য একটি যুগপযোগি লক্ষ্য নির্ধারণ করার পরেও সেই লক্ষ্য পূরণ করতে পারবেন না, যদি না আপনি লেগে না থাকেন।

অনেক সময় দেখা যায় সফলতার কাছ থেকে আমরা মুখ ফিরিয়ে নেই, তখন দোষ দেই আমাদের ভাগ্যের। লক্ষ্য নির্ধারন করার পর সেই লক্ষ্য পূরণের জন্য নিজেকে সময় বেঁধে দিতে হবে এবং লক্ষ্যটিকে ছোট ছোট ভাগে ভাগ করতে হবে।

যখন আপনি ছোট ছোট ভাগে আপনার বড় লক্ষ্যকে ভাগ করতে পারবেন তখন তা অর্জন করা অনেক বেশী সহজ হয়ে যাবে। – কে এম চিশতি সিয়াম – ইউটিউব লিঙ্ক