কিভাবে ইলেকট্রিক বাল্ব তৈরির ব্যবসা শুরু করবেন

ইলেকট্রিক বাল্ব তৈরির ব্যবসা শুরু করবেন

ইলেকট্রিক বাল্ব তৈরির ব্যবসা

ইলেকট্রিক বাল্ব তৈরির ব্যবসা

 

পৃথিবীর যেখানে বিদ্যুৎ রয়েছে সেখানেই বাল্ব এর প্রয়োজন। আলো ছড়াতে ইলেকট্রিক বাল্ব ব্যবহৃত হয়। বিভিন্ন অফিস, বাসাবাড়ী, কলকারখানায় ইলেকট্রিক বাল্ব ব্যবহৃত হয়ে থাকে।  ইলেকট্রিক বাল্ব এর আলোয় আজ বিশ্ব আলোকিত। শিল্পায়ন ও নগরায়নের ফলে বাল্বের চাহিদা দিন দিন বেড়েই চলেছে। অনেক তরুণ উদ্যোক্তা এই ব্যবসাটি শুরু করতে আগ্রহী। ইলেকট্রিক বাল্ব এর ব্যবহার প্রতি মূর্হুতে প্রয়োজন হয়ে থাকে।

 

অবস্থান: এই ব্যবসাটি শুরু করতে একটি নিদিষ্ট জায়গার প্রয়োজন। এই ব্যবসাটি শুরু করার জন্য একটু বেশি জায়গার প্রয়োজন হয়ে থাকে। যদি আপনার বাড়ির পাশে জায়গা থাকে তাহলে আপনি ঐ জায়গায় ব্যবসাটি পরিচালনা করতে পারেন।

 

সম্ভাব্য পুজিঁ: এই ব্যবসাটি শুরু করতে ৮০০০০০০ টাকা থেকে ১০০০০০০০ টাকা পর্যন্ত সম্ভাব্য পুজিঁ বিনিয়োগ করতে হবে।

 

কেন এই ব্যবসাটি শুরু করবেন

ইলেকট্রিক বাল্ব ব্যবসাটি একটি জনপ্রিয় ব্যবসা। এই ব্যবসায়ের ঝুঁকির সম্ভাবনা নেই বললেই চলে। এই ব্যবসাটি সারা বিশ্বে প্রচলিত একটি ব্যবসার ধারণা। এর ব্যবসায়ের  চাহিদার সাথে সাথে গ্রাহকের চাহিদাও বেড়ে চলেছে। প্রতি মুহুরতে এর চাহিদা বাড়ছে।

 

 

কিভাবে শুরু করবেন: সাধারণত এই ব্যবসাটি একটি বৈদ্যুৎতিক প্রতিষ্ঠান হিসেবে বিবেচিত হয়। এটিতে বিশেষ করে মেশিনের ব্যবহার বেশি রয়েছে। আপনাকে কাচের বাল্ব এর একটি নকশা তৈরি করতে হবে। তারপর তাতে মেশিনের সাহায্যে বায়ুশূন্য অবস্থায় আর্গন ও নিয়ন গ্যাস ভরে নিচের অংশে স্ক্রু যুক্ত কওের দিতে হবে । পরর্বতিতে এটিকে প্যাকেট করে সাজাতে হবে। এই ভাবে আপনি এই ব্যবসাটি শুরু করতে পারেন।

 

বাজারজাত করণ: যাদের বাড়িতে বাড়িতে অথবা প্রতিষ্ঠানে বৈদ্যুৎতিক সংযোগ রয়েছে তারাই এই ব্যবসায়ের ভোক্তা। বাজারে এর চাহিদা দিনদিন বেড়েই চলেছে। বিভিন্ন দোকানে এর ব্যবহার রয়েছে। এক্ষেত্রে আপনাকে খুচরা বিক্রেতাদের নিকট পাইকারী দরে পণ্যটি বিক্রি করতে হবে।

যোগ্যতা: এই ব্যবসাটি করতে হলে আপনাকে দক্ষ শ্রমিক নিয়োগ দিতে হবে এবং এর উপর অভিজ্ঞতা থাকতে হবে তানা হলে এই ব্যবসাটি পরিচালনা করা কঠিন হয়ে পড়বে। সকলকেই এই কাজের প্রতি দক্ষ হতে হবে।

 

সম্ভাব্য লাভ

অন্যান্য ব্যবসায়ের থেকে এই ব্যবসায়ের লাভের পরিমান বেশি। এই ব্যবসায়ের মাধ্যমে প্রতি মাসে ৫০০০০ টাকা থেকে ২০০০০০ টাকা পর্যন্ত আয় করা সম্ভব।