প্রকল্প সম্ভাব্যতা বিশ্লেষণ অপরিহায্য কতিপয় শব্দাবলীর বিবরণ

প্রকল্প সম্ভাব্যতা বিশ্লেষণ

প্রকল্প সম্ভাব্যতা বিশ্লেষণ অপরিহায্য কতিপয় শব্দাবলীর বিবরণ

প্রকল্প সম্ভাব্যতা বিশ্লেষণ অপরিহায্য কতিপয় শব্দাবলীর বিবরণ

কোন কাজ বা প্রকল্প গ্রহণ করা বা না করার বিষয়ে সম্ভাব্যতা যাচাইয়ের মাধ্যমে তার দিক নির্দশনা পাওয়া যায়। নিম্মে প্রকল্প সার্বিক ভাবে যাচাই ও বিশ্লেষনের ক্ষেত্রে কিছু প্রয়োজনীয় শব্দের বিবরণ তুলে ধরা হলো।

১। উপকরণ:- কোন প্রকল্প কার্যক্রম বাস্তবায়নের জন্য যে সকল যন্ত্রপারিত, কাঁচামাল ও জিনিসপত্র ব্যবহার হয় এক কথায় যাকে উপকরণ বলে। যেমন নাসারীর ক্ষেত্রে জমি, বীজ, সার ঔষধ, কাস্তে, কোদাল, নিড়ানী। শ্রম প্রভৃতিকে পণ্য হিসাবে বিবেচনা করা হয়।

২। স্থায়ী সম্পদ:- প্রকল্প কাজে ব্যবহৃত  যে সকল উপকরণ এক বা একাধিক বৎসর কাজে লাগানোর উদ্দেশ্যে ক্রয় করা হয় তাকে স্থায়ী সম্পদ বলা হয়। এই রূপ স্থায়ী সম্পদ ক্রয়ের খরচ প্রকল্পের প্রারম্ভিক ব্যয় হিসাবে বিবেচিত হয়।

৩। প্রারম্ভিক ব্যয়:- উদ্দ্যোক্তা তার প্রকল্প শুরু সময় একাধিক বার ব্যবহারের জন্য অথবা ভবিষ্যাতে আরো টিকে রাখার জন্য উপরকরণ ক্রয় করেন। উপকরন ক্রয় করতে যে ব্যায় বা খরচ হয় তাকে প্রারম্ভিক খরচ বা ব্যয় করা হয়। যেমন হাঁস, মুরগির খামার স্থাপনের জন্য খর, খাঁচা, খাবার, খাবারের ট্রে, ঔষধ পত্র রাখার আসবাবপত্র ক্রয় ইত্যাদি খরচ প্রারম্ভিক ব্যয় বা খরচের অন্তঃভুক্ত।

৪। স্থায়ী ব্যয় বা খরচ:- উৎপাদনের সাথে সংশ্লিষ্ট নয় কিন্ত ব্যয় অপরিহায্য এমন ব্যয়কে স্থায়ী ব্যয় বলা হয়। যেমন প্রকল্ট কর্মচারী বেতন, ঋণের সুধ, দোকান বা জমির ভাড়া, খাজনা, স্থায়ী সম্পদ ক্রয় ইত্যাদি।

৫। চলতি ব্যয় বা পরিবর্তনশীল ব্যয়:- যে সমস্ত ব্যয় সরাসরি হ্রাসের সাথে ব্যয়ে উঠানাম করে। ঐ সকল ব্যয়ের খাত সমূহকে চলতি বা পরিবর্তনশীল ব্যয় বলা হয়। পণ্য উৎপাদনে ব্যবহৃত কাঁচামাল ও অন্যন্য উপকরণ ক্রয় বাবদ যে পরিমান টাকা খরচ হয় তাহা পরিবর্তনশী ব্যয়ের অন্ত:ভুক্ত। উদাহরণ স্বরুপ মৎসা চাষ প্রকল্পে মাছের পোনা ক্রয় মূল্য, সার, খাদ্যে ক্রয় মূল্য ও পরিবহন খরচ। মাছের পোনা ছোট বড় হলে খরচের পরিমান কম বা বেশি হবে। অনুরূপ মাছের উৎপাদন কম বা বেশী হতে পারে। এ ক্ষেত্রে মাছের পোনা ক্রয় একটি পরিবর্তনশীল ব্যয়।

৬। বিক্রয়:- প্রকল্পের লক্ষ্য উদ্দেশ্য অনুযায়ী উৎপাদিত পণ্য বা দ্রব্যসমূহ বিক্রয়ের মাধ্যমে যে টাকা ফেরত আসে তাকে বিক্রয় বলা হয়। যেমন মুরগী পালন প্রকল্প থেকে ডিম, মুরগী, মুরগীর বাচ্চা ও মুরগীর বিষ্টা বিক্রয় থেকৈ যে অর্থ ফেরত আসে তাহা ঐ প্রকল্পের মোট বিক্রয় হিসাবে বিবেচিত হয়।

৭। বিনিয়োগ:- কোন প্রকল্প থেকে আয়ের উদ্দেশ্যে প্রকল্পের পূর্ণ মেয়াদ কালীন সময়ের মধ্যে উৎপাদন বা পর্ণ সৃষ্টীতে যে পরিমান অর্থের প্রয়োজন হয় তাহাকেই বিনিয়োগ বলা হয়। প্রকল্পের পূর্ণ সময় কালের মধ্যে যাবতীয় প্রারম্ভিক ব্যয়। স্থায়ী ব্যয় ও পরিবর্তনশীল ব্যয় সর্বমোট বিনিয়োগের অন্তঃভুক্ত।

৮। সর্বমোট আয়:- নিদৃষ্ট কোন প্রকল্ট থেকে উৎপাদিত সমল পণ্য বা দ্রব্য সামগ্রী বিক্রয়ের মাধ্যমে যে পরিমান অর্থ আয় হয় তা থেকে চলতি বা পরিবর্তনশীল ব্যয় বাদ দিয়ে যে অর্থ পাওয়া যায় তাহাই সর্বমোট আয় বা গ্রস আয়। গ্রস আয় থেকে স্থায়ী ব্যয়কে বাদ দেয়া হয় না।

 

উদাহরণ:- মেহেদী হাসান এক বৎসর জন্য তার ৫০ শতাংশ একটি পুকুরে আধুনিক পদ্ধতিতে মাছ চাষের প্রকল্প নিয়েছিল তার খাত ভিত্তিক খরচের হিসাব নিম্মরূপ

উপকরণ                                  সংখ্যা/পরিমান                         টাকা

 

১। মাছের পোনা                                     ১৫০০টি                    ২২৫০ /-

 

২। চুন                                                ৫ কেজি                      ১২৫০/-

 

৩। জৈব সার                                      ৫০০০ কেজি                ৭৫০০/-

 

৪। অজৈব সার (ইউরিয়া+ টি,এস,পি)           ১০০ কেজি                   ২৫০০/-

 

৫। চালের কুড়া                                     ৫৫০ কেজি                    ১৬০০/-

 

৬। জাল টানা (৪বার)                                                               ১৬০০/-

 

৭। মজুরী ব্যয় (১০০ শ্রম দিবস)                                                 ৩০,০০০/-

 

৮। পুকুর সংস্কার                                                                   ৫০০০/-

 

৯। মাছ ধরা ও বিক্রয়                                                            ২০০০/-

 

মোট পরিবর্তনশীল খরচ =  ৫৩৭৫০/-

মোট মাছ বিক্রি ৬০০ কেজি ও ২০০ = ১২০,০০০/-

মেহেদী হাসানের সর্বমোট আয় = ১২০,০০০ – ৫৩৭৫০ = ৬৬,২৫০/-

মোট উপযুক্ত হিসাব পুকুরের লিজ মুল্য ধরা হয়নি।

 

৯। প্রকৃত আয়:- নিদৃষ্ট প্রকল্প থেকে সৃষ্ট সকল ধরনের পণ্য বিক্রয়ের মাধ্যমে যে আয় পাওয়া যায় তা থেকে স্থায়ী ও পরিবর্তনশীল ব্যয় বাদ দিয়ে সে অর্থ পাওয়া  যায় তাহাই প্রকৃত আয় মোট বিক্রিত অর্থ (পরিবর্তনশীল ব্যয় + স্থায়ী ব্যয়)