কিভাবে কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয় পড়ুয়া শিক্ষার্থীদের জন্য হোস্টেল ব্যবসা চালু করবেন

কিভাবে হোস্টেল ব্যবসা চালু করবেন

কিভাবে হোস্টেল ব্যবসা চালু করবেন

কিভাবে হোস্টেল ব্যবসা চালু করবেন

হোস্টেল ব্যবসা আমাদের দেশে অনেক আগ থেকেই চলে আসছে, যা একটি লাভজনক প্যাসিভ ইনকাম মাধ্যম। কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয় পড়ুয়া শিক্ষার্থীদের জন্য হোস্টেলের প্রয়োজনীয়তা ব্যাপক। বিশেষ করে উচ্চ শিক্ষা ও উন্নত শিক্ষার মানসিকতা নিয়ে যারা পাড়ি জমান দূরদূরান্তে তাদের জন্য হোস্টেলের গুরুত্ব অপরিসীম।

পড়াশোনা, খাওয়া- দাওয়া ইত্যাদি জৈবিক কাজ গুলো একটি ভালো হোস্টেলের অনবদ্য ভূমিকা থাকে। এক্ষেত্রে কোন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের পাশে শিক্ষার্থীদের জন্য একটি ভালো হোস্টেল স্থাপনকে দূরদর্শী ও সেবা মূলক ব্যবসায় ক্যারিয়ার হিসেবে বিবেচনা করা হয়ে থাকে। একটি মাঝারী মানের পুজিঁ হলেই যে কোন উদ্যোক্তা এই ব্যবসাটি শুরু করতে পারেন। একটি বাড়ি ভাড়া নিয়ে পরিকল্পনা অনুযায়ী বাড়িটিকে হোস্টেলে রূপান্তরিত করে এই ব্যবসাটি শুরু করতে হবে।

তাছাড়াও ছাত্র- ছাত্রী ও কর্মজীবীদের জন্য আলাদা হোস্টেলের ব্যববস্থা করেও এই ব্যবসাটি নির্বাহ করা যেতে পারে। এই ব্যবসাটি শুরু করে নিজের ক্যারিয়ার গঠনের পাশাপাশি আরো বহু মানুষের কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করা যেতে পারে। সৎ ও কর্তব্য পরায়ণ যে কোন উদ্যোক্তা এই ব্যবসাটি শুরু করে সফল হতে পারেন।

শহর কিংবা মফস্বলে সকল নাগরিক সুবিধা সংবলিত স্থানে যে কোন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের পাশে এই ব্যবসাটি শুরু করা যায়। হোস্টেল ব্যবসা শুরু করতে আনুমানিক ৮ লাখ টাকা থেকে ১০ লাখের বেশী টাকা পর্যন্ত পুজিঁ বিনিয়োগ করতে হবে।

হোস্টেল ব্যবসা শুরু করতে প্রথমেই সকল নাগরিক সুবিধা সমূহ সহজেই নিশ্চিত করা যায় এমন স্থানে এবং কোন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের পাশে একটি বাড়ি নির্ধারণ করতে হবে। বাড়িটি ভাড়া করে ভালো ভাবে হোস্টেলের উপযোগী করে ডেকোরেশন করতে হবে। হোস্টেলের আসবাবপত্র হিসেবে আবাসিক ছাত্র- ছাত্রীদের থাকা ও পড়াশোনার জন্য কিছু সিঙ্গেল খাট ও টেবিল সরবরাহ করতে হবে। তাছাড়াও গোসল ও খাওয়া- দাওয়া সম্পন্ন করার সুবিধাও থাকতে হবে। যেভাবে ব্যবসায় সফল হবেন।

থাকা, পড়াশোনা ও ডাইনিং রুম ইত্যাদি আলাদা আলাদা করে সাজাতে হবে। প্রতিটি রুমে ৩ বা ৪ জন করে থাকার ব্যবস্থা করতে হবে। এরপর হোস্টেল পরিচালনা করার জন্য ২বা ৩ জন লোক নিয়োগ করতে হবে। তাছাড়া রান্নার জন্য দক্ষ বাবুর্চি, রান্নার কাজে সহযোগীতার জন্য সহযোগী এবং নিরাপত্তার জন্য দারোয়ান নিয়োগ করতে হবে। হোস্টেলের প্রচারণার জন্য বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীদের মাঝে পোস্টার ও লিফলেট বিতরণ করতে হবে। হোস্টেল ভালো ভাবে পরিচালনা করার জন্য একটি নীতিমালা প্রণয়ন করতে হবে। এই ভাবে এই ব্যবসাটি পরিচালনা করতে হয়।

বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরাই এই ব্যবসার প্রধান ভোক্তা। তবে অনেক চাকুরীজীবীও এই ব্যবসার ভোক্তা হতে পারেন। হোস্টেল ব্যবসা শুরু করতে হোস্টেল পরিচালনা করার দক্ষতা থাকতে হবে।  এই ব্যবসাটি শুরু করে প্রতি মাসে ৫০ হাজার+ টাকা পর্যন্ত আয় করা যায়।