হৃদরোগে কোথায় ব্যথা হতে পারে – হৃদরোগের লক্ষন সমূহ

হৃদরোগের লক্ষন সমূহ

হৃদরোগে কোথায় ব্যথা হতে পারে – হৃদরোগের লক্ষন সমূহ

হৃদরোগে কোথায় ব্যথা হতে পারে – হৃদরোগের লক্ষন সমূহ

পৃথিবীতে প্রায় প্রতিটি দেশেই কম বেশি অনেকেই হৃদরোগে আক্রান্ত হয়। এটি একটি ভয়ানক সমস্যা। এই রোগের ফলে অনেকেই মারা যায়। আর যদিও এই রোগ নিয়ে বেঁচে থাকে তাহলে তাদেরকে পড়তে হয় অনেক সমস্যায়। তাহলে প্রশ্ন আসে এই রোগটি কি ? বা কি লক্ষনে বোঝা যাবে যে আপনার হৃদরোগ হয়েছে। এটি মূলত হার্ট অ্যাটাক।

অনেকেই মনে করে থাকেন বুকে ব্যথা করলে বা প্রচুর ঘাম ঝরলেই হৃদরোগ হয়ে থাকে। তবে এই লক্ষন গুলো ছাড়াও চিকিৎসকেরা আরও কিছু লক্ষন চিহ্নিত করেছেন। বাঁচতে হলে আমাদেরকে অবশ্যই এই লক্ষণ গুলো জানতে হবে। কোন অসহ্য যন্ত্রনা বা অস্বস্তিকর অনুভুতি অবহেলা করবেন না। আসুন জেনে নেই হৃদরোগের আসল লক্ষন গুলো।

আমাদের অনেক সময় দেখা যায় কাজ করার ফাঁকে অসহ্য মাথা ব্যাথা করে। যা মাত্রাহীন। তা অবহেলা করবেন না। কেন না হার্ট অ্যাটাকের এটিও একটি লক্ষন। এই রকম পরিস্থিতি হলে আপনাকে অবশ্যই চিকিৎসকের পরামর্শ নিতে হবে।

হৃদরোগের আরেকটি লক্ষন হচ্ছে বুকের ডানদিকে ব্যথা করা কোন ভারী কাজ করার সময় অথবা অতিরিক্ত টেনশনের ফলে আমাদের অনেক সময় বুকের ডান দিক ব্যথা করে। এটি মূলত হার্ট অ্যাটাকের লক্ষন। তাছাড়া গলা, কাঁধ বা চোয়ালে অদ্ভুত ও অস্বস্তিকর ব্যথাও হৃদরোগের লক্ষণ হতে পারে। তাই এই ব্যথা গুলো সম্পর্কে আপনাকে অধিক সচেতনতা অবলম্বন করতে হবে।

আজকাল প্রায় মানুষের কোমর ব্যথা বা পিঠের দুই হাড়ের মাঝখানে ব্যথা হয়ে থাকে। এটিকে আমরা মূলত সাধারণ ব্যথা বলে মনে করে থাকি। আসলে এটি সাধারণ ব্যথা নয়। এই ব্যথাটিও কিন্তু আপনার হার্ট অ্যাটাকের লক্ষণ হতে পারে।  সুতরাং সময় থাকতে সাবধান হোন।

আরো পড়ুনঃ যে ৯টি গুনাবলী উদ্দ্যোক্তার সাফল্য বয়ে আনে

আমাদের প্রায় সময়ই পেটে অসহ্য ব্যথা হয়। কিন্তু আমরা এটি গ্যাসের ব্যথা বা অন্যান্য কারণ জনিত ব্যথা বলে মনে করে থাকি। আসলেই কি তাই ? না, চিকিৎসকেরা মনে করেন হঠাৎ পেটে অসহ্য ব্যথাও হ্রদরোগের লক্ষন হতে পারে তাই এই ব্যথাকে অবহেলা না করে দ্রুত চিকিৎসকের পরামর্শ নিন।

ভারী কাজ বা অনেক ক্ষন কাজ করার ফলে আমাদের হাতের কব্জিতে অনেক সময় যন্ত্রনা করে। এটিও একটি হার্ট অ্যাটাকের লক্ষণ।

আমাদের হাতের তালু বা পায়ের পাতা প্রায় সময়  জ্বালাপোড়া করে। আর এর জন্য আমরা ঠান্ডা পানিতে হাত পা ভিজিয়ে রাখি। কিন্তু প্রশ্ন এটি কেন হয় ? আসলে হার্ট অ্যাটাকের কারণেই মূলত আমাদের এই সমস্যা হয়। সুতরাং ঠান্ডা পানিতে না ভিজিয়ে আমাদের উচিত চিকিৎসকের পরামর্শ নেওয়া।

পরিশেষে এটিই বলতে চাই, যদি উপরের কোন লক্ষণ আপনার অথবা আপনার পরিবারের কারোর ভিতর দেখতে পান তাহলে অতি দ্রুত ডাক্তারের পরামর্শ নিন। আপনার একটু সচেতনতাই একটি জীবন বাঁচাতে পারবে।