স্ব উন্নয়নের ৫টি সেরা নীতিমালা

স্ব উন্নয়ন বা Self-improvement যে কোনো সাফল্যের মূল ভিত্তি

স্ব উন্নয়নের ৫টি সেরা নীতিমালা

স্ব উন্নয়নের নীতিমালা

আপনি যখন নিজেকে উন্নত করার চেষ্টা করবেন তখন প্রথমেই আপনাকে বিশ্বাস করতে এটি আপনার ব্যক্তিগত যাত্রা, যেখানে অন্যের সাথে নিজেকে তুলনা করা যাবে না। স্ব উন্নয়নের অর্থ হচ্ছে আপনি নিজেকে মেনে নিয়েছেন যে আপনি শতভাগ পারফেক্ট না এবং এর সাথে সাথে আপনাকে এটিও মানতে হবে যে আপনি শতভাগ পারফেক্ট হতে পারবেন না।

নিজের জীবনের সফলতা আনার জন্য যতটুকু উন্নতি করা যায় আপনি ততটুকুই করবেন। আজকের এই আর্টিকেলে আমি আপনার সাথে স্ব উন্নয়নের ৫টি সেরা নীতিমালা তুলে ধরতে চাই যা হয়ত আপনাকে একটু সাহায্য করবে।

#৫। লক্ষ্য নির্ধারণ

স্ব উন্নয়নের জন্য আপনাকে অবশ্যই একটি লক্ষ্য নির্ধারণ করতে হবে। লক্ষ্য নির্ধারণ মানে হচ্ছে আপনি এখন যেমন আছেন তার থেকে নিজের অবস্থাকে আরোও উন্নত করতে চান। যখন আপনার একটি লক্ষ্য সেট করা থাকবে তখন আপনি সেই লক্ষ্য পূরণের জন্য কাজ করতে পারবেন। 

লক্ষ্যে পৌঁছাতে চাইলে নিজেকে নিজেই অনুপ্রাণিত করুন (ইনফোগ্রাফিক)

#৪। অনুপ্রেরণা পাওয়ার জন্য অপেক্ষা করবেন না

আপনি দুই ভাবে অনুপ্রানিত হতে পারবেন। প্রথম মাধ্যমটি হচ্ছে অন্যের মাধ্যমে এবং ২য় মাধ্যমটি হচ্ছে নিজের মাধ্যমে। অন্যের মাধ্যমে অনুপ্রানিত হওয়া যায় তবে সেই অনুপ্রেরনা বেশী দিন নিজের মধ্যে রাখা যায় না। আপনি যদি নিজেকে নিজেই অনুপ্রানিত রাখতে পারেন তবে তাই হতে স্থায়ী।

আপনি যদি নিজের Self-improvement ঘটাতে চান তবে অনুপ্রেরণা পাওয়ার জন্য অপেক্ষা না করে শুরু করে দিন, এতে আপনি নিজেকে নিজেই অনুপ্রানিত রাখতে পারবেন।

#৩। নেটওয়ার্কিং

স্ব উন্নয়নের অন্যতম একটি সেরা একটি মাধ্যম হলো নেটওয়ার্কিং। আপনি যত বেশী মানুষের সাথে মিশবেন তত বেশী অভিজ্ঞতা ও জ্ঞান অর্জন করতে পারবেন। আপনাকে অন্যের কাজ দেখতে হবে, শেখার মানসিকতা গড়ে তুলতে হবে, কিন্তু অন্যের সাথে নিজের তুলনা দেওয়া যাবে না।

#২। ধারাবাহিকতা বজায় রাখুন

এই বিশ্বে যে কোন কাজ শুরু করা সহজ কিন্তু চালিয়ে যাওয়া বেশ কঠিন। এই কঠিন কাজ যে বা যারা করতে পারে তারাই দিন শেষে হতে পারে জ্ঞানী,গুণী, ধনী, আলোচিত উজ্জ্বল নক্ষত্র।

আপনি নিজেকে উন্নতি করার জন্য যেই কাজ করছেন তা যদি চালিয়ে যেতে পারেন তবে আপনিও হতে পারেন বিখ্যাত, জননন্দিত, ও বিশ্ববরেণ্য। আপনার ইচ্ছাশক্তি আপনাকে বানাবে আলোকিত মানুষদের একজন।

#১। হাল ছেড়ে না দেওয়া

আপনি যদি গ্রামে বড় হয়ে থাকেন কিংবা টিভিতে দেখে থাকবেন একজন কৃষক যখন গরু দিয়ে মাঠে ফসল ফলানোর জন্য জমি চাষ করে তখন ততক্ষন পর্যন্ত হাল ধরে রাখে যতক্ষন পর্যন্ত না জমি চাষ শেষ না হয়।

ঠিক তেমনি আপনি যদি স্ব উন্নয়ন বা Self-improvement করতে চান তবে কখনই মাঝ পথে হাল ছেড়ে দিবেন না। আপনি স্বপ্ন দেখেছেন এবং সেই স্বপ্ন আপনাকেই পূরণ করতে হবে। – কে এম চিশতি সিয়াম – ইউটিউব লিঙ্ক