কিভাবে ছোট পরিসরে সুপার শপ ব্যবসা শুরু করবেন

ছোট পরিসরে সুপার শপ ব্যবসা

ছোট পরিসরে সুপার শপ ব্যবসা

ছোট পরিসরে সুপার শপ ব্যবসা

আমাদের অনেকের পছন্দের একটি ব্যবসার নাম সুপার শপ। আজকে এই ছোট লেখাটির মাধ্যমে কিভাবে সুপার শপ ব্যবসা শুরু করবেন তা নিয়ে সামান্য ধরনা দেওয়ার চেস্টা করছি।

আধুনিক ব্যবসার জগতে এক নব সংস্করণ হলো সুপার শপ ব্যবসা। উন্নত জীবনযাপন ও আধুনিকতার সংস্পর্শে থাকার মাধ্যম হিসেবে সুপার শপ গুলো বর্তমানে জনপ্রিয়তার ঊর্ধে অবস্থান করছে। শুধু তাই নয়, পছন্দনীয় পণ্য ও ভালো মন্দ যাচাই করে পণ্য পাওয়ার জন্য এটি একটি প্রসিদ্ধ স্থান।

ব্যবসায় উদ্যোক্তা হিসেবে নিজেকে আতœপ্রত্যয়ী ও স্বাবলম্ভী হিসেবে গড়ে তোলার জন্য সুপা শপের ব্যবসাটি হতে পারে একটি লাভজনক সিদ্ধান্ত। ভালো স্থান বা মার্কেটপ্লেস এবং সাজসজ্জা করা একটি ঘর হলে আপনি ক্রেতাদের পছন্দ ও গুনগত মান সম্পন্ন পণ্যের সমাহার ঘটিয়ে লাভজনক এই ব্যবসাটি পরিচালনা করতে পারেন।

যে কোন জায়গায় এই ব্যবসাটি শুরু করা যায় তবে ছোট বা বড় শহর গুলোতে প্রচুর লোক সমাগম হয় এমন কোন মার্কেটে বা বাজারে শুরু করতে পারলে ভালো হয়। অন্য যেকোন ব্যবসার চেয়ে এই ব্যবসায় গুরুত্ব সহকারে আপনার দোকানের লোকেশন ঠিক করতে হবে। ভাল একটি জায়গা আপনার ব্যবসাকে আরো সাফল্যর পথে নিয়ে যাবে।

সুপার শপ ব্যবসা একটি আধুনিক ব্যবসার ধারণা। এই ব্যবসায় তেমন কোন ঝুকিঁ নেই বললেই চলে। তবে সঠিক জায়গায় ব্যবসা শুরু করতে হবে। যুগের সাথে তাল মিলিয়ে পাল্লা দিয়ে বাড়ছে এই ব্যবসার চাহিদা। এই ব্যবসায় লাভের পরিমাণ বেশি। বর্তমানে অনেক স্মার্ট উদ্যোক্তা এই ব্যবসাটি শুরু করতে আগ্রহী হয়ে উঠছেন। যে কোন তরুণ উদ্যোক্তা এই ব্যবসাটি শুরু করে একটি স্মার্ট ক্যারিয়ার গঠনের পাশাপাশি আর্থিক ভাবে স্বাবলম্ভী হয়ে উঠতে পারেন।

সুপার শপ ব্যবসা শুরু করতে আনুমানিক ৮ লক্ষ টাকা থেকে ১৫ লক্ষ টাকা পর্যন্ত পুজিঁ বিনিয়োগ করতে হবে। ক্ষেএ বিশেষ টাকার পরিমান আরো বেশী লাগতে পারে।

কিভাবে একটি সুপার শপ ব্যবসা শুরু করবেন: এই ব্যবসাটি শুরু করতে আনুমানিক ২০০০ বর্গ ফুটের একটি ঘর নির্ধারণ করতে হবে। তারপর যথাযথ কর্তৃপক্ষের নিকট হতে বৈধতার কাগজপত্র সংগ্রহ করে সুন্দর লাইটিং সহ ঘর ভালো ভাবে ডেকোরেশন করতে হবে। বিভিন্ন ধরনের পণ্য সাজিয়ে রাখার জন্য আলাদা আলাদা তাক তৈরী করতে হবে। সাধারণত সুপার শপ গুলোতে তরতাজা মাছ হতে শুরু করে ক্রোকারিজের পণ্য পর্যন্ত সকল পণ্য বিক্রি করা হয়ে থাকে। সকল প্রকার সুপার শপ পণ্যের সাহায্যে তাক গুলো আলাদা আলাদা করে সাজাতে হবে। স্টেশনারি ব্যবসা কি লাভজনক? পড়ুন এখানে।

এরপর কয়েকজন দক্ষ বিক্রয়কর্মী নিয়োগ করতে হবে। আর চলমান বাজারের সাথে সংগতি রেখেই সকল পণ্যেও দাম নির্ধারণ করতে হয়। এই ভাবে একটি সুপার শপ পচিালনা করতে হয়।  সাধারণত সকল শ্রেণীর মানুষই এই ব্যবসার গ্রাহক হবেন না। অনেকে মনে করেন সুপার শপে দাম বেশী রাখা হয়। তার ব্যবসা শুরু করার আগে বিভিন্ন লিফলেট দাম সহকারে সম্ভাব্য গ্রাহকের কাছে প্রচার করতে হবে।

এই ব্যবসাটি শুরু করতে বিভিন্ন পণ্য সাজানোর জন্য সৃজনশীল কৌশল আয়ত্ত্ব করতে হবে। সততা ও গ্রাহকদের সাথে ভালো ব্যবহারই এই ব্যবসার প্রধান যোগ্যতা।

সম্ভাব্য আয়: এই ব্যবসাটি শুরু করে প্রতি মাসে ৬০ হাজার বা তার বেশী টাকা পর্যন্ত আয় করা যায়। যত বেশী বিক্রি করবেন তত বেশী আয় হবে। সুপার শপ ব্যবসা করে সাফল্য পেতে হলে প্রয়োজন ছাড়া খরচ কমাতে হবে।