সবাইকে সন্মান করুন

সবাইকে সন্মান করুন

সবাইকে সন্মান করুন

সবাইকে সন্মান করুন

জীবনে সম্মানিত সেই হয় যে অন্যকে সম্মান দিতে পারে। তবে দুঃখের বিষয় কি জানেন, এখনকার যুগে যে যত যাকে অসম্মানিত করতে সে নিজেকে তত সম্মানিত মনে করে। কিন্তু আসলেই কি সে সম্মানিত হতে পারে? মোটেন না! নিজেকে নিজে সম্মানিত মনে করলেই অন্যের কাছে সম্মানিত হওয়া যায় না।

 

আপনি যদি কষ্ট করে সফল ব্যক্তিদের মধ্যে থাকা গুনাবলী পর্যালোচনা করতে পারেন তবে যেই বৈশিষ্ট্য সব চেয়ে কমন পাবেন তা হলো তারা বিনয়ী ও অন্যকে সন্মান দিতে জানে।

 

এই গুন তাদের সাফল্যের রাস্তাকে আরো সুগম করে। বিশ্বাস করুন এই গুন অর্জন করা মোটেই কঠিন কিছু না। আসুন জেনে নিই কিভাবে খুব সহজে অন্যকে সন্মান দেওয়া যায় এবং সেই সাথে নিজেও সম্মানিত হওয়া যায়।

 

অন্যের কথা মন দিয়ে শুনুন

আপনি যখন অন্যের কথা মন দিয়ে শুনছেন এর মানে আপনি অন্যের জন্য সময় বিনিয়োগ করছেন এবং তাদের প্রতি গুরুত্ব দিচ্ছেন। একই ভাবে আপনি যখন কথা বলবেন তারাও একই রকম আপনার কথা শুনবে এবং আপনাকে গুরুত্ব দিবে।

 

অন্যকে সাহস দিন

যখন আপনার আশে পাশে কেউ কঠিন সময় পার করছে তখন তাদের কাছে ছুঠে যান। এর জন্য আপনাকে বিশেষ কিছু করতে হবে না, শুধু বলুন “চিন্তা করবেন না, সব কিছু ঠিক হয়ে যাবে”।

 

এই এত টুকু আশ্বাস তাদের মনে সাহস জোগাবে। আপনার দেওয়া এই সাহসই হয়ত তাদেরকে ঘুরে দাঁড়াতে সাহায্য করবে। এর ফলে তারা আপনাকে মনে রাখবে এবং তাদের কাছে আপনি একজন সম্মানিত মানুষ হিসাবে থাকবেন।

 

যেমন ধরুন, আপনি একটি কঠিন অসুখ নিয়ে ডাক্তার দেখাতে গেলেন এবং ডাক্তার আপনাকে দেখে বলল আপনি সুস্থ হয়ে যাবেন, চিন্তা করবেন না। এক বার ভেবে দেখুন এই কথাটা সে বললেও পারত, কিন্তু বলাতে আপনার মনে একটি সাহস চলে আসবে এবং মন থেকে সেই ডাক্তারের জন্য শ্রদ্ধা কাজ করবে। 

 

সুন্দর ব্যবহার

সফল ব্যক্তিরা কখনই রগচটা হয় না। অন্যের সাথে ভাল ব্যবহার আপনাকে সম্মানিত করবে। কিন্তু সমস্যা হচ্ছে আমরা তেলা মাথায় তেল দিতে বেশি পছন্দ করি।

 

আমরা সবার সাথে সুন্দর ব্যবহার করি না। আমাদের টাকাওয়ালা আত্মীয়ের সাথে এক ব্যবহার করি, যার টাকা নাই তার সাথে অন্য রকম ব্যবহার করি।

 

অনেক সময় দাদার বয়সী রিস্কাওয়াকে বলে ফেলি এই রিস্কা যাবি! একবার ভাবুন তো সে যদি আপনার আপন কেউ হত? আমরা কি পারি না হাঁসিমাখা মুখে একটু কথা বলতে, হয়ত আপনার হাঁসিমাখা মুখটা ঐ রিস্কাওয়ার ক্লান্তি দূর করবে।   

 

অভিনন্দন জানাতে দ্বিধা করবেন না

সব সময় ভালো কাজের প্রশংসা করুন। ভালো কাজের প্রশংসা করলে ঐ ব্যক্তির মনে আরো ভালো কাজ করার ইচ্ছাশক্তি জাগবে এবং আপনাকে সে সম্মানের চোখে দেখবে। আপনার অফিসে কর্মীদের ভালো কাজে প্রশংসা করুন এতে তারা আপনার জন্য আরো ভালো কিছু করার চেষ্টা করবে।

কে এম চিশতি সিয়াম // ইউটিউব লিঙ্ক 

আরো পড়ুন –