সঞ্চয় এবং বিনিয়োগের মধ্যে পার্থক্য

সঞ্চয় এবং বিনিয়োগের মধ্যে পার্থক্য

সঞ্চয় এবং বিনিয়োগের মধ্যে পার্থক্য

সঞ্চয়কে ঘুমন্ত টাকা এবং বিনিয়োগকে জীবিত টাকার সাথে তুলনা করা যেতে পারে। যে কোন দেশের অর্থনীতিতে সঞ্চয় এবং বিনিয়োগ উভয়ই খুবই গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখে। সাধারনত যে সকল দেশের জনগনের সঞ্চয় বেশী সেই সকল দেশে বিনিয়োগও বেশী এবং ফল স্বরূপ সেই সকল দেশ তত বেশী উন্নত।

সঞ্চয় এবং বিনিয়োগ উভয়ই ভবিষ্যৎ এর জন্য করা হয়। সঞ্চয় এবং বিনিয়োগ একে অপরের উপর নির্ভরশীল। কেননা সঞ্চয় প্রাথমিক অবস্থা নির্দেশ করে অন্যদিকে বিনিয়োগ সঞ্চয়ের পরবর্তী অবস্থা নির্দেশ করে। তার পরেও এদের মধ্যে কিছু পার্থক্য থেকেই যায়।

আসুন সঞ্চয় ও বিনিয়োগের মধ্যে মূল কিছু পার্থক্য জানার চেষ্টা করি।

#১। ভবিষ্যতের কিছু প্রয়োজন ও চাহিদা পূরণ করার জন্য বর্তমান ইনকাম থেকে কিছুটা তুলে রাখার নামই সঞ্চয়। অন্যদিকে বিনিয়োগ বলতে বোঝায় মুনাফা লাভের উদ্দেশ্যে সঞ্চিত অর্থ উৎপাদনমুখী কাজে ব্যবহার করা।

#২। সঞ্চয় শুরু করা সহজ অন্যদিকে বিনিয়োগ করা তুলনামূলক কঠিন।

#৩। সঞ্চয়ে তারল্য বেশী অন্যদিকে বিনিয়োগে কিছুটা কম। যেমন আপনি যদি মাটির ব্যাঙ্কে টাকা জমান তাহলে সেটা ভেঙ্গে ফেললেই টাকা পাবেন, কিংবা ব্যাংক বা পোস্ট অফিসে টাকা থাকলেও ৪/৫ দিনের মধ্যে সঞ্চয় ক্যাশ করা যায়।

অন্যদিকে কিছু বিনিয়োগে একটু সময় লাগে, যেমন আপনি যদি জমি, বাড়ী, ফ্লাটে বিনিয়োগ করেন তাহলে এই বিনিয়োগ থেকে টাকা ক্যাশ করাটা সময় সাপেক্ষ। আবার বিনিয়োগের অন্য মাধ্যম যেমন, শেয়ার বাজার থেকে ৩/৪ দিনের মধ্যে টাকা ক্যাশ করা যায়।

#৪। সাধারণত সঞ্চয় করা হয় অল্প সময়ের জন্য অন্যদিকে বিনিয়োগের সর্বনিন্ম সময় ১ বছর।

#৫। সঞ্চয়ে ঝুঁকি কম থাকে একই সাথে রিটানও অনেক কম থাকে, অন্যদিকে বিনিয়োগে ঝুঁকি বেশী একই সাথে লাভের পরিমানও বেশি।

#৬। সঞ্চয় করলে এই পিছনে কোন শ্রম দিতে হয় না, অন্যদিকে বিনিয়োগে মেধা ও শ্রম দিতে হয়। তাইতো সঞ্চয়ের চেয়ে বিনিয়োগে ফলাফল দারুন আসে।

#৭। সঞ্চয়ে নিজের উপর করণীয় কিছু থাকে না, অন্যদিকে বিনিয়োগে নিজের দক্ষতা কাজে লাগিয়ে ভালো ফলাফল আশা করা যায়।

আপনি জানেন কি? – কেন আমরা বিনিয়োগ করি

#৮। সঞ্চয় করার খাত বেশী, অন্যদিকে বিনিয়োগের খাত খুবই কম।  

#৯। খেয়ে পরে বেঁচে থাকার জন্য সঞ্চয়ের বিকল্প নেই, অন্যদিকে Financial Freedom বা আর্থিক স্বাধীনতা অর্জন করতে চাইলে বিনিয়োগের বিকল্প নেই।

আড়াই হাজার বছর আগে দার্শনিক সক্রেটিস বলেছিলেন, ‘যৌবনে অর্ধেক খাও আর অর্ধেক কর সঞ্চয়’।

শেষ কথা, আপনি সঞ্চয় করেন কিংবা বিনিয়োগ করেন না কেন, মনে রাখতে হবে বর্তমানে দেশের পেক্ষাপটে আপনি যদি বছরে ৫.৭৬% এর বেশি আপনার সঞ্চিত অর্থ থেকে রিটান না পান তবে এই সঞ্চয় আপনার জন্য লস প্রজেক্ট। ভিজিট করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল – Bangla Preneur YouTube Channel