কমপক্ষে কত টাকা হলে শেয়ার বাজারে বিনিয়োগ করা যায়

শেয়ার বাজারে বিনিয়োগ কত করতে হয়।

কত টাকা হলে শেয়ার বাজারে বিনিয়োগ করা যায়

কত টাকা হলে শেয়ার বাজারে বিনিয়োগ করা যায়

যত বিনিয়োগ করা যায় ততই ভাল। তবে আইডেল মানি বা অলস টাকা শেয়ার বাজারে বিনিয়োগ করা ভাল। পুঁজিবাজার কে ২ ভাগে ভাগ করা যায়। একটি প্রাইমারী বাজার এবং আরেকটি সেকেন্ডারী বাজার।

প্রাইমারী বাজার আবার দুই ভাগে ভাগ করা যায়। এর এক অংশ প্রি-আইপিও বাজার। আরেকটি আইপিও বাজার। সেকন্ডারী বাজারে স্টক এক্সচেঞ্জ এর মাধ্যমে ক্রয় বিক্রয় সম্পন্ন হয়ে থাকে।

কমপক্ষে ৫০০০ টাকা দিয়ে আইপিও বা প্রাইমারী বাজারে আবেদন করা যায়। বিও অ্যাকাউন্ট খুলতে টাকা লাগে ৬০০। কমপক্ষে ৬০০০ টাকা দিয়ে কোন নতুন বিনিয়োগকারী পুজিবাজারে বিনিয়োগ শুরু করতে পারে। একসাথে একাধিক আইপিও আসলে টাকার পরিমান বেশী হওয়া ভাল।

সেকেন্ডারী মার্কেটে বিনিয়োগ করতে হলে কমপক্ষে ২০ থেকে ২৫ টাকা দিয়ে শুরু করতে পারে। অভিজ্ঞা বাড়ার সাথে সাথে বিনিয়োগ এর টাকা বাড়ানো ভাল। বিনিয়োগের প্রিমান যত বেশী হবে ঝুঁকি ব্যবস্থাপনার সুযোগ তত বেশি থাকবে। শেয়ারবাজারে সবোচ্চ যেকোন অঙ্কের টাকা বিনিয়োগ করার সুযোগ রয়েছে।

তাহলে বুজা গেল যে, আপনি আপিও এর জন্য ৫০০০ থেকে ৬০০০ টাকা এবং সেকেন্ডারী মার্কেট এর জন্য ২০ থেকে ২৫ টাকা বিনিয়োগ করা যেতে পারে। আমাদের দেশে মোটামুটি আইপিওতে রিস্ক এর পরিমান খুবি কম। আইপিওতে বিনিয়োগ করে অতীতে অনেকে অনেক লাভবান হয়েছে।

শুরুতে একজন বিনিয়োগকারী হিসাবে আইপিও আবেদন এর মাধ্যমে শেয়ার বাজারে আসা উচিত। তাতে দুই রকম লাভ হতে পারে। যেমন রিস্ক এর পারিমান নাই বললেই চলে এবং ২য় অভিজ্ঞতা অর্জন করে সেকেন্ডারী মার্কেট এ ভাল কিছু করতে পারা। সবার বিনিয়োগ শুভ হোক। নিত্য নতুন শেয়ার মার্কেট নিয়ে আপডেট পেতে আমাদের ফেইজবুক পেইজে লাইক দিয়ে একটিভ থাকুন।