যে ১০টি অভ্যাস গরিবকে আরো গরিব বানায়

১০টি অভ্যাস গরিবকে আরো গরিব বানায়

যে ১০টি অভ্যাস গরিবকে আরো গরিব বানায়

যে ১০টি অভ্যাস গরিবকে আরো গরিব বানায়

আপনি একটু খেয়াল করলে দেখবেন দিন দিন ধনীরা ধনী হচ্ছে এবং গরিবরা আরো বেশী গরিব হচ্ছে। কিছু অভ্যাস ধনীদের আরো ধনী ও সম্পদশালী হতে সাহায্য করে এবং কিছু অভ্যাস গরিবকে আরো গরিব বানায়। আজকের এই সংক্ষিপ্ত আর্টিকেলে যে ১০টি অভ্যাস গরিবকে আরো গরিব বানায় তা তুলে ধরার ইচ্ছা প্রেষণ করছি।

১। লোন করে সখ পূরণ

প্রতিটি মানুষের কিছু না কিছু সখ থাকে। সখ পূরণ করতে পারলে তা মানসিক শান্তির কারন হয়ে দাঁড়ায়। কিন্তু আমি যেই সখ পূরণ করতে চাচ্ছি তার জন্য যদি আমার লোন করতে হয় তবে সেই সখ পূরণ না করাই ভাল।

লোন করে সখ পূরণ করলে আসলে তার মধ্যে কোন আনন্দ খুঁজে পাওয়া যায় না। লোন করলে আমি সুদের সাথে সম্পৃক্ত হয়ে গেলাম যা মোটেই ভাল কিছু না এবং আমি একটি দায়বদ্ধতার মধ্যে পরে গেলাম। ফলে লোন করে সখ পূরণ করতে গিয়ে ক্ষতির সম্ভাবনা বেশী থাকবে।

 

২। সময়কে মূল্য দেয় না

একজন ধনী ও সম্পদশালী সময়কে টাকার চেয়ে বেশী মূল্য দেয়। কিন্তু অপেক্ষাকৃত কম সম্পদশালী মানুষ সময়কে গুরুত্ব দেয় না। তারা আড্ডাকে গুরুত্ব দেয়, ঠাট্টা মশকারি করে সময়কে পায়ের নীচে ফেলে পিষে মেয়ে ফেলে। দিন শেষে তখন আফছোছ করা ছাড়া আর কিছুই থাকে না। পড়ুন – কেন টাইম ম্যানেজমেন্ট শিখতেই হবে 

 

৩। হতাশাগ্রস্থ মানুষের সাথে থাকে

অপেক্ষাকৃত কম সম্পদশালী মানুষেরা হতাশাগ্রস্থ মানুষের সাথে নিজেকে ঘিরে রাখে। আপনি একবার চিন্তা করে দেখুন যে সারা ক্ষন হতাশার মধ্যে থাকে তার কাছ থেকে আপনি কি আর অনুপ্রেরণা পাবেন? জানুনঃ নেগেটিভ মানুষের সাথে চলবেন না

 

৪। টাকা শুধু জমাতে চায়

এই বিশ্বে এমন কোন উদাহরন নেই যে, কোন ধনী ও সম্পদশালী শুধু মাএ টাকা জমিয়ে বড়লোক হতে পেরেছে। টাকা জমাতে হবে কোন লক্ষ্যকে কেন্দ্র করে। টাকা জমানোর লক্ষ্য থাকা উচিত বিনিয়োগ করা। কেননা, বিনিয়োগ না করে টাকা জমালে বছর শেষে আমি লসের মধ্যে পরে থাকব।

 

৫। ধনীদের হিংসা করে

অপেক্ষাকৃত কম সম্পদশালী মানুষেরা ধনীদের হিংসা করে। আমি যদি ধনী ও সম্পদশালী হতে চাই তবে আমাকে অন্য ধনী ও সম্পদশালীদের অনুসরন করতে হবে, কিভাবে সফল হয়েছে, কিভাবে ব্যর্থতা কাটিয়ে উঠেছে তা জানতে হবে, আমি যদি ধনীদের হিংসা করি তবে আমি কিছুই জানতে পারবেন না।

 

৬। আত্মবিশ্বাসী হতে চায় না

অপেক্ষাকৃত কম সম্পদশালী মানুষেরা সাধারনত আত্মবিশ্বাসী হতে পারে না। তারা তাদের অতীতের ব্যর্থতা বার বার মনে করে এবং সেই ব্যর্থতা ভুলতে পারে না, এর ফলে নিজের মধ্যে আত্মবিশ্বাসের জন্ম দিতে পারে না। আরোও পড়ুন – আত্মবিশ্বাস বাড়াতে পারেন এই ৬ উপায়ে

 

৭। সিন্ধান্তহীনতায় ভুগে

প্রতিটি মানুষের কাছে কিছু না কিছু ভাল সুযোগ আসে। যেই মানুষ খুব বেশী সিন্ধান্তহীনতায় ভুগে সে তার জন্য ভাল কিছু করতে পারে না। সিদ্ধান্ত নেওয়া একটি দক্ষতা

 

৮। দেখানোর জন্য কিছু করে

নিজের যা দরকার না তা কিনে অন্যের চোখে বড় হওয়ার চেষ্টা করা মানে হচ্ছে নিজেকে ধোকা দেওয়া। আর নিজেকে যদি নিজেই ধোকা দেয় তবে কার কি করার থাকে।

 

৯। ভবিষ্যৎকে ভাগ্যের উপর ছেড়ে দেয়

ভবিষ্যৎকে ভাগ্যের উপর ছেড়ে দেওয়ার সহজ এবং একমাএ মানে হচ্ছে অন্ধকার। আমি যদি পরিশ্রম না করে মনে করি ভাগ্যে যা আছে তাই হবে তাহলে আমাকে না খেয়েই মরতে হবে।

 

১০। নতুন কিছু শিখতে চায় না

যেই মানুষ নতুন কিছু শিখতে চায় না সে মনে করে সে নিজেই সব জানে। আসলে আমরা কেউ কোন দিনই সব কিছু জানতে পারি না, আমাদের মধ্যে শেখার আগ্রহ থাকতে হবে – কে এম চিশতি সিয়াম – ইউটিউব লিঙ্ক