যে ভাবে মানসিক চাপে বিপর্যস্ত মানুষের পাশে দাঁড়াতে পারবেন

যে ভাবে মানসিক চাপে বিপর্যস্ত মানুষের পাশে দাঁড়াতে পারবেন

মানসিক চাপে বিপর্যস্ত মানুষের পাশে দাঁড়াতে পারবেন

মানসিক চাপে বিপর্যস্ত মানুষের পাশে দাঁড়াতে পারবেন

মানসিক চাপে বিপর্যস্ত মানুষের পাশে দাঁড়ানো একটি নৈতিক কর্তব্য। এ মানুষটি যদি আপনার কাছের মানুষ হয় তাহলে তার পাশে দাঁড়ানো আপনার দায়িত্ব। একটি সমীক্ষা থেকে জানা যায় যে প্রায় ৪৫ শতাংশ মানুষ কোন না কোন কারণে মানসিক ভাবে বিপর্যস্ত। আর টুইটারে গড়ে প্রতিদিন প্রায় ১ লক্ষ মানসিক চাপ সম্পর্কিত টুইট আসে।

তাই বলা যায় যে আমাদের প্রত্যেকের আশপাশে মানসিক ভাবে বিপর্যস্ত কিছু মানুষ রয়েছে। মানসিক ভাবে অসহায় এই সব মানুষের পাশে আমাদের দাঁড়ানো উচিত। আমাদের উচিত তাদেরকে মানসিক ভাবে সহায়তা প্রদান করা। আমাদের সহযোগীতাই তাদেরকে মানসিক ভাবে শক্তিশালী করে তুলতে পারে। আমরা কিভাবে মানসিক চাপে বিপর্যস্ত মানুষের পাশে দাঁড়াতে পারি তা নিয়ে নিচে আলোচনা করা হলো।

উপহার পেতে সবারই ভাল লাগে। কোন কারন ছাড়াই উপহার দিন। কেন তিনি মানসিক চাপে ভোগছেন তা বুঝতে তার সাথে ব্যক্তিগত আলাপচারিতায় মিশে যান। এর ফলে যিনি মানসিক সমস্যায় আছেন তিনি সমস্ত আবেগ, অনুভূতি দ্বিধাহীন ভাবে প্রকাশ করবেন।

তার সাথে এমন ভাবে কথা বলুন যাতে মনে হয় আপনি সমস্যার সমাধান জানেন। আর এই ভাবে কথা বলতে হলে শত ভাগ আত্নবিশ্বাসের সাথে কথা বলতে হবে। পড়ুন – কাছের একগুয়ে মানুষদের সামলানোর ৫ টি সেরা উপায়

তার সাথে আলোচনায় বসুন। আলোচনায় তাকেও কথা বলতে দিন। তার কথা বেশী শুনুন। আর তার সাথে এমন ভাবে কথা বলুন যাতে মানসিক চাপে বিপর্যস্ত মানুষটি নিজেই তার সমস্যাটি বুঝে উঠতে পারে।

তার সাথে ইতিবাচক কথা বার্তা বলুন। তার অন্যান্য বিষয়ের প্রশংসা করতে থাকুন। তার সাথে কিছুতেই কোন নেতিবাচক কথা বার্তা বলবেন না। পাশাপাশি তার দৃষ্টিভঙ্গিও ইতিবাচক করে তোলার চেষ্টা করুন।

যারা মানসিক চাপ কাটিয়ে উঠার চেষ্টা করছেন তাদেরকে সফলতার ব্যাপারে আশাবাদী করে তলুন। পাশাপাশি বিভিন্ন ভাবে সহযোগিতাও করতে পারেন।

তাদের চিন্তা ভাবনা গুলো বুঝে উঠার চেষ্টা করুন। যে বিষয়টি কেন্দ্র করে সে মানসিক ভাবে চাপে রয়েছে সে সম্পর্কে তারা কি ভাবছেন তা বুঝে উঠার চেষ্টা করুন। তাদের সাথে সর্বদা ইতিবাচক ভঙ্গিতে আচরণ করুন। কিছুতেই নেতবাচক কিছু করবেন না।

তাদেরকে বিভিন্ন ভাবে উŤসাহিত করার চেষ্টা করুন। তাদের যে কোন কাজে প্রশংসা করুন। জানুন – যে ৪ টি উপদেশ কাউকে না দেওয়াই ভালো

তাদেরকে মানসিক স্বাস্থ্য সম্পর্কে ইতিবাচক ধারণা দেওয়ার চেষ্টা করুন। মানসিক স্বাস্থ্য সম্পর্কে অবজ্ঞা মানসিক চাপের চেয়ে ভয়াবহ।

তাদেরকে সব সময় রাগ নিয়ন্ত্রণ ও আত্নবিশ্বাসের অর্জনে সু-পরামর্শ প্রদান করুন। পাশাপাশি তাদেরকে যে কোন প্রকার সহিংসতা ও বৈষম্য থেকে দূরে রাখুন। কোন প্রকার ধমক দিবেন না ও উল্টো চাপ না পরে এরকম কিছু করা থেকে বিরত থাকুন।

সর্বোপরি মানসিক ভাবে বিপর্যস্ত হওয়ার প্রাথমিক লক্ষণ গুলো দেখতে পেলে তাকে মনোরোগ বিশেষজ্ঞের দ্বারস্থ করুন।