মানুষ কেন প্রতিষ্ঠানবাসী?

মানুষ কেন প্রতিষ্ঠানবাসী?

মানুষ কেন প্রতিষ্ঠানবাসী

মানুষ কেন প্রতিষ্ঠানবাসী

মানুষ সামাজিক জীব। বহুকাল আগ থেকেই সমাজ বদ্ধ হয়ে মানুষের বসবাসের কারনও মানুষ নিজে। অত্যন্ত আদুরে একটি জাতি এই মানুষ। মানুষের শারীরিক ক্ষমতাও কম। মানুষের শিং নেই, ধারাল কোন নখ নেই, কোন কিছু কাটার মত সুচালু ঠোঁট নেই, বেশী গরম বা ঠান্ডা সইবার মত মোটা চামড়াও নেই। আত্মরক্ষা ও আক্রমন করার মত কিছুই নেই। হয়ত এর জন্য একটি পিপড়ার কামড়ও মানুষ সহ্য করতে পারে না।

মানুষ জাতির প্রতিক্ষনে অন্যের সাহায্য নিয়ে চলতে হয়। জঙ্গলবাসী মানুষের সমাজবদ্ধ হয়ে বাস করার কারন হিসাবে এটিই ভাবা হয়ে থাকে।

প্রিয়জনের স্বার্থরক্ষা এবং নিজের আত্নরক্ষার জন্য মানুষকে হতে হয় সামাজিক। এবং এই সামাজিকতার কারনে প্রতি মুহূর্তে মানুষকে থাকতে হয় যে কোন প্রাতিষ্ঠানিক আবদ্ধতায়।

নানবিধ প্রতিষ্ঠানের আওয়ার এক এক সময় মানুষকে থাকতে হয়। কখন পরিবার নামক প্রতিষ্ঠানে, কখন আবার স্কুল কলেজে, কখন উপার্জনমুখী প্রতিষ্ঠান যেমন অফিস, আদালত, ব্যবসা, বাণিজ্য, ব্যাংক, বীমা সহ নানাধিক প্রতিষ্ঠানের আওতায়।

আবার মানুষ কখনও ক্লাব, সমিতির মত প্রতিষ্ঠানে নিজেকে জড়িয়ে রাখে। কখন আবার পার্ক, চিড়িয়াখানা, হাসপাতালের মত প্রতিষ্ঠান ঘিরে থাকে। কেহ আবার রাজনৈতিক দলের সাথে জড়িয়ে থাকে। অনেকই মসজিদ, মাদ্রাসা, মন্দির, গির্জার মত ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানের সাথে সংযুক্ত থাকে।

মোট কথা, আমি বা আপনি বা যে কোন মানুষ তার জীবনকালে কোন না কোন প্রতিষ্ঠানের সেবা গ্রহনকারী বা সেবা প্রধানকারী হিসাবে অপর মানুষের সহবর্তী হয়ে থাকে।

যত কাল মানুষের অস্তিত্ব থাকবে তত কাল মানুষ কোন না কোন প্রতিষ্ঠান যা সামাজিক, রাজনৈতিক, অর্থনৈতিক, ধর্মীয়, মানবিক কিংবা সাংস্কৃতিক ইত্যাদি যে কোন দিকের চাহিদা পূরণ করে।

ব্যাক্তি স্বাধীনতার কারনে এক একটি মানুষকে পরিবার ও সমাজ ছাড়া বলে মনে হতে পারে মাঝে মাঝে, কিন্তু ভাল করে পর্যালোচনা করলে দেখা যাবে তারাও কোন না কোন প্রতিষ্ঠান থেকে সুবিধা নিয়ে বা দিয়ে যাচ্ছে।

জেনে নিন – উন্নয়ন ও স্বাভাবিক পরিবর্তনের মধ্যে পার্থক্য কি

প্রতিষ্ঠানের সাথে মানুষের এই গভীর সম্পর্কের কারনে যে কোন মানুষ, যে সব প্রতিষ্ঠানের সাথে যুক্ত থাকে, ঐ সব মানুষের উপর তার সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানের একটি প্রভাব থাকে।

মানুষ কেন প্রতিষ্ঠানবাসী এই প্রশ্নের উপরোক্ত আলোচনায় নিশ্চয়ই প্রতীয়মান হয় যে, মানুষ ও প্রতিষ্ঠান এই দু’য়ের সম্পর্ক কত বেশী ঘনিষ্ঠ। এদিক থেকে মানুষকে প্রতিষ্ঠানবাসী হিসেবে বিশেষিত করা যায়।