ব্যবসা শুরু করার সেরা সময় কখন

ব্যবসা শুরু করার সেরা সময় কখন

ব্যবসা শুরু করার সেরা সময় কখন

ব্যবসা শুরু করার সেরা সময় কখন

যে কোন কাজ শুরু করার জন্য শতভাগ নিখুঁত দিন আপনি কখনই খুঁজে পাবেন না। তেমনি ব্যবসা শুরু করার জন্য শতভাগ নিখুঁত সময় নেই। তবে কিছু কাজ এবং পদক্ষেপ রয়েছে যা শেষ করেই আপনাকে ব্যবসা শুরু করতে হবে। এখানে ঠিক তেমনি ৫টি কাজ ও পদক্ষেপ তুলে ধরছি যা শেষ করে আপনি আপনার ব্যবসাটি শুরু করতে পারেন।

১। আপনি সত্যিই ব্যবসা করতে চান।

সত্যি বলতে কি চাকরি করার চেয়ে ব্যবসা করা অনেকগুন কঠিন। আপনি যদি চাকরি করেন তবে একটি নিশ্চয়তা আছে যে, মাস শেষে আপনি বেতন পাবেন। কিন্তু আপনি যদি ব্যবসা করেন তবে এই নিশ্চয়তা আপনি পাবেন না।

 

কেননা ব্যবসায় প্রফিট পেতে চাইলে কেনা বেচা করতে হবে, কেনা বেচা ভাল হলে প্রফিট ভাল আসবে ঠিক তেমনি কেনা বেচা খারাপ ফলে প্রফিট খারাপ আসবে। তাই এই অনিশ্চয়তা আপনাকে মেনে নিয়েই ব্যবসা করতে হবে।

 

আপনার কাছে ভালো একটি বিজনেস আইডিয়া আছে এর মানে এই না যে আপনি সফল হবেন, আপনার ভালো বিজনেস আইডিয়াটি যখন গ্রাহক গ্রহন করবে তখনই আপনি সফল হবেন। আপনাকে আপনার ব্যবসা না, গ্রাহকের নিদিষ্ট কোন সমস্যার সমাধান করতে হবে।

 

২। আপনার কাছে নতুন ব্যবসায়ের জন্য পর্যাপ্ত সময় এবং শক্তি রয়েছে।

আপনি যেই ব্যবসাই শুরু করুন না কেন সাফল্য পেতে চাইলে আপনাকে যথেষ্ট সময় ও শক্তি বিনিয়োগ করতে হবে। তাড়াহুড়া করে ব্যবসা শুরু করা যায় তবে এতে সফলতা আসে না। ব্যবসাটি শুরু করার আগে আপনাকে মার্কেট রিসাচবিজনেস প্লানে সময় ব্যয় করতে হবে। এর পরেই আপনি ব্যবসায় নামতে পারবেন।

 

৩। আপনার একটি আর্থিক পরিকল্পনা আছে।

যে কোন ব্যবসায় মূলধন লাগে। আমাদের মধ্যে অনেকেই এই বিষয়টা বুজেও বুজি না। আর্থিক পরিকল্পনা ও যথেষ্ট মূলধন ছাড়া ব্যবসা শুরু করলে ক্ষতির হওয়ার সম্ভাবনা থাকে। 

প্রথম দিকে আপনাকে যথেষ্ট মূলধন নিয়েই ব্যবসায় নামতে হবে, কেননা ব্যবসা শুরু করার পরের দিন থেকেই আপনি লাভ করতে নাও পারেন। যত দিন ব্যবসা থেকে লাভ না আসবে সেই তত দিন আপনি কিভাবে চলবেন তার একটি সাপোর্ট রাখতে হবে। আরো পড়ুন – ছোট ব্যবসা ব্যর্থ হওয়ার ৭ টি কারণ

 

৪। আপনার জীবনের গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিরা আপনার ব্যবসাকে সমর্থন করছে তা নিশ্চিত করুন।

যে কোন ব্যবসায় যথেষ্ট সময়, শ্রম ও মূলধন লাগে এবং এর সাথে আপনার জীবনের গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিদের সংশ্লিষ্টতা রয়েছে। কেননা আপনার ব্যবসাটি সফল করার জন্য নানা ধরনের ঝুঁকি আপনাকে নিতে হতে পারে, তাই এই ঝুঁকি আপনি কতটুকু বহন করতে পারবেন তাও দেখে নিতে হবে।

 

৫। শতভাগ সঠিক সময়ের জন্য অপেক্ষা করবেন না।

ব্যবসা শুরু করার প্রাথমিক কাজ গুলো শেষ হলেই ব্যবসাটি শুরু করে দিন। অনেক সময় ব্যবসা শুরু করার আগে অনেক কিছুই জানা যায় না। তাই যখন আপনি ব্যবসাটি শুরু করবেন তখন বাস্তবিক অভিজ্ঞতা আপনার ব্যবসাকে সফল করবে। – কে এম চিশতি সিয়াম – ইউটিউব লিঙ্ক