ব্যবসা শুরু করতে ৯টি প্রয়োজনীয় ধাপ

ব্যবসা শুরু করতে ৯টি প্রয়োজনীয় ধাপ

ব্যবসা শুরু করতে ৯টি প্রয়োজনীয় ধাপ

ব্যবসা শুরু করতে ৯টি প্রয়োজনীয় ধাপ

একটি ছোট ব্যবসা শুরু করতে যা প্রয়োজন তা হল দৃঢ়তা ও প্রেরণা। একটি সুন্দর কর্মজীবন শুরু করতে একটি ব্যবসা হতে পারে একটি দুর্দান্ত উপায়। ব্যবসা শুরু করতে হলে যে ৯টি ধাপ অনুসরণ করতে হবে তা নিচে দেওয়া হলো।

ব্যবসার সুযোগ শনাক্ত করুন প্রচুর পরিমাণে সুযোগ রয়েছে এমন ব্যবসার ধারণা নির্বাচন করুন। কিসের উপর আপনার দক্ষতা ও অভিজ্ঞতা রয়েছে তার উপর ভিত্তি করে ব্যবসার ধারণাটি নির্ধারণ করা জরুরী।

ব্যবসা পরিকল্পনা তৈরি করুন।

পরিকল্পনা ছাড়া ব্যবসা শুরু করা আর টাকা পানিতে ভাসিয়ে দেয়া প্রায় এক বিষয়। ব্যবসা যতই ছোট বা বড় হোক না কেন আর জন্য অবশ্যই সঠিক পরিকল্পনা করতে হবে। একটি ভালো ব্যবসা পরিকল্পনা একটি ব্যবসাকে সফল করে।

প্রারম্ভিক মূলধন খুঁজুন।

একটি ব্যবসা শুরু করার জন্য আপনাকে অবশ্যই ব্যবসাতে বিনিয়োগ করতে হবে। প্রত্যেক উদ্যোক্তার জন্য প্রারম্ভিক মূলধন খোঁজার উপায় ভিন্ন হতে পারে। আপনার প্রয়োজনীয় অর্থ এমন একটি উৎস থেকেও আসতে পারে যা আপনি কখনো ভাবেননি। একটা ব্যবসা করতে যত টাকা দরকার হবে তার থেকে বেশী টাকার ব্যবস্থা করে ব্যবসা শুরু করা উচিত।

ব্যবসার নাম।

ব্যবসা শুরু করার আপনার ব্যবসার নাম একটি অতি প্রয়োজনীয় ধাপ। একটি ইউনিক ও অর্থবোধক ব্যবসার নাম প্রতিযোগিতার সমুদ্র হতে আপনার ব্যবসাটিকে আলাদা করতে পারে। ব্যবসার নাম এমন হওয়া উচিত যা মানুষ সহজে উচ্চারন ও মনে রাখতে পারে। অর্থবোধক হলেও কঠিন উচ্চারনের নাম না দেওয়াই উত্তম।

ব্যবসার লাইসেন্স এবং পারমিট।

ব্যবসা ছোট বা বড় হোক না কেন, তারত জন্য দরকার লাইসেন্স ও প্রয়োজনীয় অনুমতি। অনেক ক্ষেএে অনেকেই ছোট ব্যবসার জন্য দরকারী  ব্যবসার লাইসেন্স গ্রহন করে না। যা মহা ভুল। ব্যবসার লাইসেন্স থাকলে আপনি যেমন মনের দিক থেকে শান্তি পাবেন ঠিক তেমনি ব্যবসাটি বড় করলেও কোন সমস্যা হয় না। পড়ুন – ট্রেড লাইসেন্স ব্যবসার শুরুতেই তৈরি করে ব্যবসায় নিজেকে এগিয়ে রাখুন

ব্যবসায়ের অবস্থান নির্ধারণ করুন – business location

একটি ভাল স্থান নির্ধারণ আপনার ব্যবসার শুরু করার জন্য অত্যন্ত প্রয়োজনীয় একটি ধাপ। বিশেষ করে খাবার ভিত্তিক ব্যবসা করতে চাইলে অবস্থান নির্ধারণকে অনেক গুরুত্ব দিতে হবে।

ব্যবসায়ীক বীমা করুন – business insurance

ছোট ব্যবসার মালিক হিসেবে ব্যবসা সম্পর্কিত সকল ঝুকিঁ গুলো পরিচালনার দায়িত্ব আপনার। বীমা আপনাকে ব্যবসার সকল ঝুঁকি থেকে রক্ষা করে। তাই ভবিষ্যৎ দুর্যোগ এবং সকল প্রকার ঝুঁকি থেকে রক্ষা পেতে বীমা করা প্রয়োজন।

হিসাব রক্ষণের পদ্ধতি তৈরী করুন

আপনার ব্যবসার সুবির্ধার্থে একটি হিসাবরক্ষণ পদ্ধতি গ্রহণ করতে হবে। একটি সঠিক হিসাবরক্ষণ পদ্ধতি আপাকে আপনার ব্যবসার অর্থনৈতিক অবস্থা বুঝতে ও ব্যর্থতা এড়াতে সাহায্য করবে।