ব্যবসা করার জন্য কি দক্ষতা থাকা উচিত?

ব্যবসা করার দক্ষতা

ব্যবসা করার জন্য কি দক্ষতা থাকা উচিত

ব্যবসা করার জন্য কি দক্ষতা থাকা উচিত

যেকোন ব্যবসা শুরু করা ও সফল ভাবে চালানোর জন্য দক্ষতার প্রয়োজন। এক একটি ব্যবসার দক্ষতা আলাদা আলাদা। ধরুন আপনি হাঁস পালন করতে চাচ্ছেন সে ক্ষেএে আপনাকে হাঁসের জাত সম্পর্কে জানতে হবে। আবার ধরুন আপনি কম্পিউটার ভিত্তিক ব্যবসা করবেন সেই ক্ষেএে কম্পিউটার সম্পর্কে দক্ষ হতে হবে। তারপরেও কিছু সাধারন দক্ষতার প্রয়োজন হয় সকল ব্যবসায়। আজকের এই লেখায় সেই সকল গুরুত্বপূর্ণ ব্যবসা করার দক্ষতা তুলে ধরার চেষ্টা করছি।

সততা

এই  দক্ষতা আপনার শুধু ব্যবসাই বাচাবে না বরং আপনার আখিরাতও বাচাবে। আজকে আপনি যদি অসৎ ভাবে ব্যবসা করেন হয়ত বেশ কিছু দিন ভালই চলবে। যখন আপনার গ্রাহক বুজতে পারবেন আপনি অসৎ তখন আপনার কাছে না দিয়ে অন্য কারো কাছে যাবে। তাই ব্যবসা করার জন্য সততা থাকবে হবে।

প্রযুক্তিগত দক্ষতা

বর্তমান বিশ্বে ব্যবসায় টিকে থাকতে হলে প্রযুক্তিগত ভাবে দক্ষ হতে হবে। আপনাকে অনলাইন থেকে গ্রাহক খুঁজে নিতে হবে। ব্যবসা করার জন্য প্রযুক্তিগত দক্ষতা থাকা চাই।

নমনীয়তা

অন্যতম প্রয়োজনীয় ব্যবসায়িক দক্ষতার নাম নমনীয়তা। আপনার গ্রাহক থেকে শুরু করে কর্মচারী সবার সাথে নমনীয় ভাবে চলতে হবে। যাকে যে কাজ দিবেন সে কাজ তাকে বুজিয়ে দেওয়া থেকে শুরু করে তাকে সাহায্য পর্যন্ত করতে হবে। সেই পরিস্থিতি আসুন না কেন নমনীয়তা আপনাকে ব্যবসায় এগিয়ে নিয়ে যাবে।

পরিশ্রম

পরিশ্রম শুধু ব্যবসায়িক দক্ষতাই নয় বরং আপনার ব্যক্তিত্ব তুলে ধরে। আজকে যত সফল ব্যবসায়ী রয়েছেন তাদের মধ্যে যত দক্ষতা আছে তার মধ্যে পরিশ্রম করার দক্ষতাই আপনি এক নাম্বারে পাবেন। ব্যবসায় সফল হওয়ার জন্য পরিশ্রমের বিকল্প নেই। আরো পড়ুন – বাংলাদেশে ব্যবসা শুরু করার আগে যে ৭ টি বিষয় অবশ্যই জানতে হবে

যোগাযোগ করার দক্ষতা

আপনি যেই ব্যবসা করুন না কেন যোগাযোগ দক্ষতা থাকতেই হবে। ইমেল থেকে শুরু করে গ্রাহক বা পাইকার বা বিজ্ঞাপন দাতা প্রতিষ্ঠানের সাথে ফোনে, সরাসরি যোগাযোগ করার ক্ষমতা থাকবে হবে।

সমস্যা সমাধানের দক্ষতা

সমস্যা ও ব্যবসা একে অপেরর সাথে লেগেই থাকবে। আপনি যখনই একটি পদক্ষেপ নিতে যাবেন তখনই একটি সমস্যা এসে দরজায় টোকা দিবে। যেই সমস্যাই আসুন না কেন তা সমাধানের দক্ষতা থাকতে হবে।

নতুনত্ব জানার আগ্রহ

জ্ঞান মানুষকে বড় করে আবার জ্ঞান নিতে না চাওয়া ধ্বংস করে। ব্যবসায় অনেক সময় কম অভিজ্ঞ কর্মচারীর পরামর্ষ কাজে লাগে। তবে সবার কথা শুনবেন কিন্তু সিন্ধান্ত আপনি নিজেই দিবেন।

এছাড়াও সময়ের প্রতি যথেষ্ট জ্ঞান রাখতে হবে, কথা দিয়ে কথা রাখা, কর্মী ও গ্রাহকেই সাথে ভাল ব্যবহার থাকতে হবে।