সাধারন কিন্তু কার্যকারী ব্যবসার মার্কেটিং এর জন্য ৮ টি সেরা পরামর্শ

ব্যবসার মার্কেটিং এর জন্য ৮ টি সহজ উপায়

কার্যকারী ব্যবসার মার্কেটিং

কার্যকারী ব্যবসার মার্কেটিং

যে কোন ব্যবসায় সফল হতে হলে মার্কেটিং এর বিকল্প নেই। সঠিক ভাবে পণ্য বা সেবার মার্কেটিং করতে না পারলে ব্যবসায় সফল হওয়া যাবে না। তাই যে কোন ব্যবসায় সফল হতে হলে সঠিক মার্কেটিং কৌশল গ্রহণ করা জরুরী।

কিন্তু অনেকেই ব্যবসা শুরু করার পর সঠিক ভাবে পণ্য বা সেবার মার্কেটিং করতে পারে না। এখানে আমরা সঠিক ভাবে পণ্য বা সেবার মার্কেটিং করতে হলে কি কি করা প্রয়োজন সে সম্পর্কে কয়েকটি পরামর্শ প্রদান করবো। নিচে তা বিস্তারিত আলোচনা করা হলো।

১. ডোমেইন ক্রয় করুন (Buy a Domain Name)

আপনার ব্যবসার নামের সাথে সাদৃশ্য রেখে ডোমেইন ক্রয় করুন। তারপর সেখানে আপনার ব্যবসাটি সম্পর্কে বিস্তারিত উল্লেখ করুন। এর ফলে গ্রাহকরা সহজেই আপনার ব্যবসাটি সম্পর্কে জানতে পারবে।

২. বিজনেস কার্ড তৈরি করুন (Make Your Business Card)

আপনার ব্যবসাটি সম্পর্কে অধিক মানুষকে অবগত করতে কিছু বিজনেস কার্ড তৈরি করুন। আর কার্ড গুলোকে যতটা সম্ভব সিম্পল রাখার চেষ্টা করুন। পাশাপাশি এতে সংক্ষিপ্ত আকারে আপনার ব্যবসাটি সম্পর্কে কিছু উল্লেখ করুন।

৩. লোগো তৈরি করুন (Make your Business Logo)

আপনার ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের একটি লোগো তৈরি করুন। তারপর এই লোগোটি ওয়েবসাইট, বিজনেস কার্ড ও অন্যান্য ডকুমেন্টে সংযুক্ত করুন।

৪. বেশি মানুষের সাথে পরিচিত হোন

যতটা সম্ভব বেশি মানুষের সাথে পরিচিত হওয়ার চেষ্টা করুন। আপনি যদি মানুষের সাথে পরিচিত হতে পারেন তাহলে মানুষেরা আপনার ব্যবসাটি সম্পর্কে স্বয়ংক্রিয় ভাবে জানতে পারবে।

এক্ষেত্রে আপনার পরিচিত মানুষদেরকে তাদের পরিচিত মানুষদের সাথে আপনাকে পরিচয় করিয়ে দিতে বলুন। এর ফলে সহজেই আপনি অধিক মানুষের সাথে পরিচিত হতে পারবেন।

৫. গ্রাহকদের ব্যবহার করুন

যে সকল গ্রাহক আপনার পণ্য বা পরিষেবাটি গ্রহণ করে উপকৃত বা সন্তুষ্ট হয়েছে তাদের নিকট হতে প্রশংসা সূচক কোন প্রমাণাদি গ্রহণ করুন। অথবা তাদের কেস স্টাডি গ্রহণ করুন।

তারপর আপনার পণ্য বা সার্ভিসটি কতটা ভালো তা অন্যদেরকে বুঝাতে তাদের প্রশংসা সূচক ডকুমেন্ট বা কেস স্টাডিটি ব্যবহার করুন।

৬. সেমিনারের আয়োজন করুন

আপনি যে সকল গ্রাহকদেরকে টার্গেট করে পণ্য বা পরিষেবাটি উৎপাদন করছেন তাদেরকে নিয়ে একটি সেমিনার আয়োজন করতে পারেন।

ফলে সে সকল গ্রাহকরা আপনার পণ্য বা পরিষেবাটি সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে পারবে। পাশাপাশি এর ফলে তারা আপনার পণ্য বা পরিষেবাটি পেতে সব সময় উন্মুখ থাকবে।

৭. ব্লগ লিখুন (Write Blog)

আপনার পণ্য বা পরিষেবাটি সম্পর্কে ব্লগ লিখতে পারেন। পাশাপাশি লিফলেট ছাপিয়েও তা বিলি করতে পারেন।

৮. গ্রাহকদের প্রতিক্রিয়া জানুন

আপনার পণ্য বা পরিষেবাটি সম্পর্কে গ্রাহকদের প্রতিক্রিয়া জানার চেষ্টা করুন।

কিভাবে আপনার পণ্য বা সেবাটিকে আরো উন্নত করা যায় সে সম্পর্কে তাদের জিজ্ঞাসা করুন। পাশাপাশি তারা যে ভাবে চাইছে সে ভাবে আপনি আপনার পণ্য বা পরিষেবাটিকে পরিবর্তন করবেন বলে তাদেরকে আশ্বস্থ করুন।