নতুন ব্যবসা ব্যর্থ হতে পারে যে ৫ টি কারনে

নতুন ব্যবসা ব্যর্থ হতে পারে যে টি কারনে

নতুন ব্যবসা ব্যর্থ হতে পারে যে ৫ টি কারনে

নতুন ব্যবসা ব্যর্থ হতে পারে যে ৫ টি কারনে

প্রায় বলতে শোনা বলা হয় যে অর্ধেকেরও বেশি নতুন ব্যবসা প্রথম বছরেই ব্যর্থ হয়। কিন্তু Small Business Association (SBA) এর মতে শতকরা ৩০ টি ব্যবসা প্রথম বছরে, ৫০ টি ব্যবসা ২য় বছর থেকে ৫ম বছর পর্যন্ত ঠিকে থাকে। বাকি ২০ টি ব্যবসা সফল ভাবে ব্যবসায়িক কার্যক্রম চালিয়ে যেতে পারে।

যাদের সঠিক ব্যবসার ধরনা, পরিকল্পনা, সাপোর্ট হিসাবে যথেষ্ট টাকা ও পরিচালনার দক্ষতা থাকে তারাই ঠিকে থাকতে পারে। আজকের এই লেখায় ৫ টি কারন আপনার জন্য তুলে হয়েছে যার জন্য নতুন ব্যবসা ব্যর্থ হতে পারে। আসুন জেনে নেই কারণগুলো কি-

#১ বাজার পর্যবেক্ষণ না করা

নতুন ব্যবসা ব্যর্থ হবার যত কারন রয়েছে তার মধ্যে এটী অন্যতম প্রধান কারন। সঠিক ভাবে বাজার পর্যবেক্ষণ না করে মন চাইলেই আপনি একটি নতুন ব্যবসা শুরু করতে পারেন না। আপনি যেই পণ্য বাজারজাত করতে চাচ্ছেন তার চাহিদা বাজারে কত খানি আছে না যাচাই না করলে ব্যবসায় সফল হতে পারবেন না। এই পণ্যের সাথে আর কি পণ্য বাজার দখল করে আছে তা জেনে নিন।

২# ব্যবসা পরিকল্পনায় সমস্যা এড়িয়ে যাওয়া

বাস্তবসম্মত ব্যবসায়িক পরিকল্পনা সফল ব্যবসায়ের ভিত্তি। বাস্তবিক লক্ষ্য কি, কীভাবে সেই লক্ষ্যে পৌঁছাবেন এবং সম্ভাব্য সমস্যা কি আছে এবং সম্ভাব্য সমস্যা কিভাবে সমাধান করবেন তারই রূপরেখা পূরণ করতে পারে ব্যবসার পরিকল্পনা।

ব্যবসা পরিকল্পনায় আপনি ইচ্ছা বা অনিচ্ছায় যদি একটি জিনিস বাদ দিয়ে দেন তাহলে ব্যবসা ব্যর্থ হতে পারে। তাই যথেষ্ট গুরুত্বের সাথে ব্যবসা পরিকল্পনা করেই ব্যবসা করতে হবে। আরো পড়ুন – ব্যবসা করার জন্য যে দক্ষতা থাকা উচিত

#৩ খুব কম টাকা নিয়ে ব্যবসা শুরু করা

ব্যবসার শুরুতেই বাস্তবসম্মত টাকা নিয়ে ব্যবসা করা ভাল। সাপোর্ট হিসাবে সব সময় কিছু টাকা রেখে দেওয়া যেতে পারেন। আপনার কাছে যত টাকা আছে তা সবটুকু একবারে বিনিয়োগ করাও ঠিক না। তাই পরিকল্পনা অনুযায়ী টাকার বরাদ্দ রেখে এগিয়ে যেতে হবে।

#৪ খারাপ অবস্থান

ব্যবসার অবস্থান যা বিজনেস লোকেশন নামেই বেশী পরিচিত। এমন অবস্থানে ব্যবসা শুরু করা ঠিক হবে না যেখানে পর্যাপ্ত যোগাযোগ ব্যবস্থা, বিদ্যুৎ সেবা, পানির ব্যবস্থা নেই। ক্ষেএ বিশেষ ইন্টারনেট সেবা থাকা জরুরী।

#৫ অতিরিক্ত খরচ

শুরুতেই মাত্রাতিরিক্ত খরচকে না বলুন। প্রয়োজনের থেকে ১ টাকাও বেশী খরচ করা যাবে না। প্রতিদিনের খরচ লিখে রাখুন, দিন শেষে বা সপ্তাহে আয় ব্যয়ের হিসাব করুন। খুব তাড়াতাড়ি ব্যবসা প্রসারিত না করে ধাপে ধাপে এগিয়ে যান। অনেক শুভ কামনা রইল।