কেন দর্শনে অনার্স করবেন এবং কোথায় চাকুরী পেতে পারেন

কেন দর্শনে অনার্স করবেন

কেন দর্শনে অনার্স করবেন এবং কোথায় চাকুরী পেতে পারেন

কেন দর্শনে অনার্স করবেন এবং কোথায় চাকুরী পেতে পারেন

দর্শনশাস্ত্র বিশ্বের  সবচেয়ে প্রাচীনতম প্রাতিষ্ঠানিক সাবজেক্ট গুলোর একটি। এটি শিক্ষার্থীদেরকে চিন্তা দক্ষতার সাথে পরিচয় করিয়ে দিতে পারে। দর্শনশাস্ত্র শিক্ষার্থীদেরকে বাস্তবতার প্রতি বিশ্বাসী করে তুলতে পারে। এই সাবজেক্টটি নিয়ে পড়ার ফলে আপনি মানবজাতির সর্বশ্রেষ্ঠ চিন্তাবিদদের নিয়ে অধ্যয়নের সুযোগ পাবেন। পাশাপাশি তাদের অস্তিত্ব, জ্ঞান, মূল্যবোধ ইত্যাদি সম্পর্কেও জানতে পারবেন।

আপনি যদি কোন বিশ্ববিদ্যালয়ে দর্শনে স্নাতক সম্পন্ন করার সুযোগ পান তবে আপনি এটিকে আপনার ছাত্রজীবনের সবচেয়ে বড় পুরষ্কার হিসেবে গ্রহণ করতে পারেন। দর্শনের শিক্ষার্থীরা সমাজের অবিচার, ভারসাম্যহীনতা ও অনৈক্য গুলো পরিষ্কার ভাবে দেখতে পান। তাছাড়া শিক্ষার্থীরা দর্শনে অধ্যয়নের ফলে যোগাযোগ দক্ষতা, সমালোচনামূলক যুক্তি এবং সাধারণ সমস্যা সমাধানের দক্ষতা অর্জন করতে পারেন।

দর্শনে অনার্স করার জন্য নির্বাচিত হওয়ার যোগ্যতা

দর্শনে স্নাতক ডিগ্রী লাভ করার জন্য নির্বাচিত হতে হলে অবশ্যই শিক্ষার্থীদেরকে দ্বাদশ শ্রেণীতে উত্তীর্ণ হতে হবে। তাছাড়াও ভর্তি পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হতে হবে।

আরো পড়ুনঃ বিবিএ পড়বেন?

কেন দর্শনে অনার্স করবেন ?

দর্শন শুধু মাত্র একটি জ্ঞানই নয়, এটি একটি গভীর অন্তজ্ঞান এবং পান্ডিত্যও বটে। দর্শনশাস্ত্রের ছাত্ররা প্রাথমিক ভাবে চিন্তাধারা, যুক্তি ও যৌক্তিক তর্কের দক্ষতা অর্জন করতে পারে। তারা পরিষ্কার ও সুসঙ্গত ভাবে তাদের চিন্তাধারা গুলো বিকশিত করতে পারে। দার্শনিকরা অন্য যে কোন ডিগ্রীধারীদের চেয়ে উচ্চতর স্তরে চিন্তাভাবনা করতে শেখে। তাছাড়া দার্শনিকরা যে কোন জাটিল ঘটনা বা কাহিনী অত্যন্ত সহজ ভাবে উপস্থাপন করতে পারেন। এই কোর্সে বিশিষ্ট অধ্যাপকরা বিভিন্ন আর্কষণীয় বিষয় শিক্ষা দিয়ে থাকেন। উপরন্তু এই বিষয়ে অনার্স শেষ করার পর পৃথিবীর যে কোন দেশে উচ্চতর ডিগ্রী অর্জনের ব্যাপক সুযোগ রয়েছে।

কোথায় দর্শনে অনার্স করবেন?

বাংলাদেশের প্রায় সব গুলো পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে এই সাবজেক্টটি পড়ার সুযোগ রয়েছে। তাছাড়া জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনস্থ অনেক বিশ্ববিদ্যালয় কলেজেও এই বিষয়ে পড়ার সুযোগ রয়েছে।

কোথায় চাকুরী পেতে পারেন ?

দর্শনে স্নাতক ডিগ্রীধারীদের জন্য কাজের অনেক বড় একটি বাজার রয়েছে। সাম্প্রতিক এক গবেষণায় দেখা গেছে যে, দর্শনে স্নানত ডিগ্রীধারীদের মাত্র ১০% বেকার থাকে। দর্শনে স্নাতক ডিগ্রীধারী শিক্ষার্থীরা বিসিএস পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়ে সরকারী চাকুরীতে প্রথম শ্রেণীর কর্মকর্তা হিসেবে যোগদান করতে পারেন।

তাছাড়াও দর্শনে স্নাতক ডিগ্রীধারীরা বিভিন্ন সরকারী ও বেসরকারী স্কুল, কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষক হিসেবে কর্মজীবন শুরু করতে পারেন। পাশাপাশি বিভিন্ন এনজিও এবং বেসরকারী প্রতিষ্ঠানের বড় বড় পদ গুলোর জন্যও নির্বাচিত হতে পারেন।

পরিশেষে বলা যায় যে, ভালো ভাবে পড়াশোনা করলে ও ভালো রেজাল্ট করতে পারলে দর্শনে স্নাতক ডিগ্রী অর্জন করেও বর্তমান প্রতিযোগীতাশীল চাকুরীর বাজারে নিজেকে একজন প্রতিযোগী হিসেবে উপস্থাপন করা যায়।