কোন ব্যবসা ঘরে বসেই করা যায়?

কোন ব্যবসা ঘরে বসেই করা যায়?

ব্যবসা ঘরে বসেই করা যায়

ব্যবসা ঘরে বসেই করা যায়

তথ্য প্রযুক্তি ও ইন্টারনেটের কল্যানে বর্তমানে অনেক ব্যবসা ঘরে বসেই করা যায়। আপনি যদি একটি ঘরোয়া ব্যবসা শুরু করতে চান তবে আজক থেকেই তার পরিকল্পনা শুরু করুন। ঘরোয়া ব্যবসায় অনেক সুবিধা রয়েছে।

অল্প পুঁজি অধিক রুজি ব্যবসা শুরু করার অন্যতম সেরা স্থান হতে পারে আপনার নিজ ঘর। লাভজনক কিছু ঘরোয়া ব্যবসার ধারনা তুলে ধরার চেষ্টা করছি।  

#১ অনলাইন ব্লগ ব্যবসা ঘরে বসেই করা যায়

অনলাইন ব্লগ একটি ঘরোয়া ব্যবসার অন্যতম সেরা উদাহরন। অল্প টাকা বিনিয়োগ করে একটি ব্লগ বানিয়ে আপনি এই ব্যবসা শুরু করতে পারে। একটি ব্লগ বানাতে আপনাকে বেশী ৪ থেকে ৫ হাজার টাকা খরচ করতে হতে পারে।

ক্ষেএ বিশেষ বেশী টাকর দরকার হলেও প্রথম দিকে ৫ হাজার টাকা যথেষ্ট। ব্লগ বানানোর পর আপনি ৪০/৫০ টি আর্টিকেল লিখে গুগল এডসেন্স বা অন্য প্লাটফর্ম ব্যবহার করে বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে টাকা আয় করতে পারবেন। কত টাকা আয় করতে পারবেন তা নির্ভর করে আপনার ব্লগ কতটা জনপ্রিয় তার উপর।

#২ আর্টিকেল রাইটার

আপনি যদি বাংলা বা ইংলিশ ভাষায় দক্ষ হয়ে থাকেন তাহলে খুব সহজেই আর্টিকেল রাইটার হিসাবে কাজ করে টাকা আয় করতে পারবেন। আপওয়াক, ফাইভার ডটকমে আপনি আর্টিকেল রাইটার হিসাবে কাজ করতে পারেন।

তবে দক্ষ ও গ্রহনযোগ্য আর্টিকেল রাইটার হতে হলে আপনাকে SEO বা Search Engine Optimization কি তা বুজতে হবে।

#৩ ইউটিউব এ ভিডিও আপলোড করে টাকা আয় করতে পারেন

নিজের বানানো যেকোন ভিডিও দিতে আপনি ইউটিউব থেকে টাকা আয় করতে পারে। তবে দিন দিন ইউটিউব অনেক কঠিন হয়ে যাচ্ছে।

ইউটিউব থেকে ইনকাম করার জন্য আপনার চ্যানেলে কমপক্ষে ১০০০ Subscribers ও ৪০০০ ঘণ্টা Watch Time লাগবে।

একবার চ্যানেল দাড় করাতে পারলে Passive Income এর একটি ভাল রাস্তা বের হয়ে যাবে। এর জন্য আপনাকে ৪/৬ মাস শ্রম দিতে হবে।

#৪ ই-কমার্স

নিজের একটি ওয়েবসাইট বা ফেসবুক পেইজে পণ্যের ছবি তুলে তা প্রচার করে শুরু করুন ই-কমার্স ব্যবসা। আমাদের দেশে বর্তমানে ই-কমার্স ব্যবসা অনেক এগিয়েছে। বেশ কয়েক বছরের তুলনায় মানুষ এখন ই-কমার্সে বেশ বিশ্বাসী।

ভাল মানের পণ্য ও মার্কেটিং এই ব্যবসায় সফল হওয়ার মূল হাতিয়ার।

#৫ ডে কেয়ার ব্যবসা

আপনি যদি বাচ্চাদের সাথে সময় পার করতে চান এবং তার বিনিময়ে অর্থ আয় করতে চান তবে ডে কেয়ার ব্যবসা শুরু করুন। আপনি নিজের বাড়ীতে বাচ্চাদের যত্ন নেওয়ার জন্য একটি ডে কেয়ার ব্যবসা শুরু করতে পারেন।

#৬ জুয়েলারি ব্যবসা

হাতের কাজের দক্ষতাকে কাজে লাগিয়ে শুরু করুন জুয়েলারি ব্যবসা। শামুক, ঝিনুক, মাটি, বিভিন্ন পাথর দিয়ে নিজের দক্ষতা কাজে লাগিয়ে জুয়েলারি বানতে পারেন। বিভিন্ন দোকান এবং অনলাইনে নিজের বানানো জুয়েলারি বিক্রি করা যেতে পারে।

#৭ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ম্যানেজার

আমাদের দেশের পেক্ষাপটে এই ব্যবসা হতে পারেন আপনার আয়ের অন্যতম সেরা মাধ্যম। এই ব্যবসা ঘরে বসেই করা যায়।

অনেক কোম্পানি এখনও তাদের সোসাল মিডিয়া নিয়ে তেমন চিন্তা করছে না বা সময় দিতে পারছে না। আপনি বিভিন্ন প্যাকেজ সাজিয়ে তাদের সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সেবা বা পণ্যের জানান দিতে পারেন।  এতে কোম্পনির বিজ্ঞাপন বাড়বে এবং আপনার আয়ের পথ তৈরি হবে।