কম কথা বলার চেষ্টা করুন এবং বেশী শুনুন

কম কথা বলার চেষ্টা করুন এবং বেশী শুনুন

কম কথা বলার চেষ্টা করুন এবং বেশী শুনুন

কথা বলা একটি দক্ষতা তবে এর চেয়ে আরো শক্তিশালী দক্ষতা কথা শুনা বা ভাল শ্রোতা হওয়া। সফল ব্যক্তিদের অন্যতম গুন তারা কম কথা বলে এবং বেশী শুনতে পছন্দ করে। মন দিয়ে কারো কথা শুনলে ক্ষতির চেয়ে উপকার বেশী হয়।

 

তবে সেই সকল মানুষদের কথা শুনবেন না যারা সারাক্ষন নেগেটিভ চিন্তা করে এবং আপনার মধ্যে তাদের এই নেতিবাচক চিন্তা ছড়িয়ে দিতে চায়। আমাদের একমাএ তখনই কথা বলা উচিত যখন আমাদের কিছু গুরুত্বপূর্ণ কথা বলার থাকে।

 

অযথা কথায় কাজের কিছুই হয় বরং বেশী কথায় সমস্যা তৈরি হয়, অন্যের সমালোচনা করা হয় এবং মিথ্যা কথা বেশী বলতে হয়।

 

সফল মানুষেরা অন্যের কথা শুনতে চায়, কেননা অন্যের কথা শোনার মাধ্যমে বিভিন্ন তথ্য জানা যায়, যার কথা শুনছেন তাকে গুরুত্ব দেওয়া হয় এবং ভাল একটি সম্পর্ক তৈরি হয়। ঠিক তেমনি আপনি যখন কথা বলবেন তখন আপনিও একই গুরুত্ব পাবেন।

 

সফল একটি সাক্ষাৎকার তখনই সফল হয় যখন যিনি সাক্ষাৎকার দিচ্ছেন এবং যিনি সাক্ষাৎকার নিচ্ছেন উভয়ই সন্তুষ্ট থাকে। ভাল শ্রোতাকে সবাই ভালবাসে, সবাই থাকে বন্ধু ভাবে।

 

আপনি যদি চান, সবাই আপনাকে ঘৃণা করুন, কেউ আপনাকে বন্ধু না ভাবুক, তবে যখনই কেউ কথা বলবে তাকে থামিয়ে দিন। এর সাথে সাথে নিজের ঢাক নিজেই পিটান, নিজের প্রশংসা করুন, নিজের কথা বলতে থাকুন, ব্যাস এতেই হয়ে যাবে।

 

আর এর যদি উল্টোটা চান, অর্থাৎ আপনি যদি চান – সবাই আপনাকে ভালবাসুক, দাম দিক, সন্মান করুন তবে অন্যের কথা মন দিয়ে শুনন এবং তাদের কথা বলতে অনুপ্রাণিত করুন। আরোও পড়ুন – শতভাগ নিখুঁত দিন নেই

 

দেখবেন খুব সহজেই তারা আপনাকে আপন বানিয়ে নিবে। কেননা, আমাদের মনের ভাব যার কাছে বেশী প্রকাশ করতে পারি তাদেরকেই আমরা বন্ধু ভেবে থাকি। আপনি যদি আপনার মনের ভাব আপনার পরিবারের সাথে বেশী প্রকাশ করতে পারেন তবে আপনার পরিবারই হবে আপনার বন্ধু। জেনে নিন – ব্যর্থ হওয়া দোষের কিছু না

 

আবার আপনি যদি আপনার মনের ভাব ক্লাসমেটের সাথে বেশী প্রকাশ করতে পারেন তবে আপনার ক্লাসমেটই হবে আপনার বন্ধু। তাই আপনি যদি সকলের পছন্দের পাএ হতে চান, তবে কম কথা বলুন এবং অন্যের কথা বেশী করে শুনুন।