কিভাবে উচ্চতা ও ওজন মাপার যন্ত্র দিয়ে ব্যবসা শুরু করবেন

কিভাবে উচ্চতা ও ওজন মাপার যন্ত্র দিয়ে ব্যবসা শুরু করবেন

ওজন মাপার যন্ত্র দিয়ে ব্যবসা

ওজন মাপার যন্ত্র দিয়ে ব্যবসা

খুবই অল্প পুঁজিতে ছোট ব্যবসার কথা ভাবছেন? উচ্চতা ও ওজন মাপার যন্ত্র দিয়ে নিজেই শুরু করতে পারেন একটি আয়ের পথ। ব্যবসাটি এতই ছোট যে, মাএ ১৫০০ টাকা দিয়ে শুরু করতে পারবেন। ওজন মাপার যন্ত্র ওয়ালটন থেকে মাএ ৯৫০ টাকা দিয়ে কিনতে পারবেন। এই ব্যবসাটি আপনি চাইলে অবসরে নিজে করতে পারবেন নতুবা অন্য কাউকে দিয়েও চালাতে পারবেন।

বর্তমানে মানুষ পূর্বের চেয়ে অনেক বেশি স্বাস্থ্য সচেতন। স্বাস্থ্য সচেতনতার এই ধারাবাহিকতা বজায় রাখার জন্য নিয়মিত মেডিক্যাল চেকআপ, ফিটনেস ও ক্যালরি সম্পর্কে জ্ঞাত থাকতে হবে। কেননা স্বাস্থ্যকে নিয়মিত ভালো রাখার অংশ হিসেবে এবং কোনো রোগ-ব্যাধি থেকে মুক্ত থাকার জন্য এগুলোর ব্যাপারে সচেতনতা অত্যাবশ্যক।

আর এ স্বাস্থ্য ও ফিটনেস ভালো ভাবে বজায় রাখার জন্য ইদানিং বিশেষজ্ঞ ডাক্তার ও কন্সালটেন্টগণ ওজন এবং উচ্চতা নিয়ে সবসময় সততর্ক থাকার পরামর্শ দিয়ে থাকেন। অতি মাত্রায় ওজন বেড়ে যাওয়া, বয়সের তুলনায় অধিক উচ্চতা বৃদ্ধি কখনোই স্বাস্থ্যের জন্য ভালো হতে পারে না।

তাই মানুষ ওজন ও উচ্চতা সম্পর্কে নিয়মিত আপডেট পেতে, ওজন ও উচ্চতা মাপার যন্ত্র ব্যবহারে অধিক সক্রিয়। এছাড়া মানুষ ক্যালরি নিয়েও অধিক সচেতন। ফলে এসব সুবিধা একসাথে আছে এমন একটি মেশিন সবসময়, সব বয়সী মানুষের উপকারে আসতে পারে। ব্যবসার দিক বিবেচনায় এটি হতে পারে একটি দুর্দান্ত ব্যবসার ধারণা। পড়ুন – ব্যবসা শুরু করে সফল হতে হলে এই ৭ সেরা পরামর্শ দেখে নিন

ব্যবসার অবস্থান: পার্ক, ফুটপাত, রাস্তার মোড় বা মার্কেটের পাশে সহজেই মানুষের চোখে পড়ে এমন স্থানে ভ্রাম্যমাণ অবস্থায় এই ব্যবসটি শুরু করা যায়।

কেন এই ব্যবসাটি শুরু করবেন

  • নিয়মিত লোক সমাগম হয় এমন স্থানে এই ব্যবসাটি সহজেই শুরু করা যায়।
  • এই ব্যবসাটি শুরু করতে বড় অঙ্কের পুজিঁ বিনিয়োগ করতে হয় না। ওজন ও উচ্চতা মাপার যন্ত্রটি সহজেই স্থানান্তর করা যায় বলে নিজের সুবিধামত জায়গায় এই ব্যবসাটি পরিচালনা করা যায়।
  • এই ব্যবসায় বাড়তি কোন ঝামেলা নেই।
  • এটি একটি ঝুকিঁ মুক্ত ব্যবসা।

সম্ভাব্য পুঁজি: এই ব্যবসাটি শুরু করতে ৯৫০ টাকা থেকে ১৫০০ টাকা পর্যন্ত পুজিঁ বিনিয়োগ করতে হয়। আরো জেনে নিনঃ ছোট শহরে যেভাবে ব্যবসা শুরু করবেন

কিভাবে এই ব্যবসাটি শুরু করবেন

ইলেকট্রনিক্সের পণ্য বিক্রি করে এমন দোকান থেকে একটি মেশিন ক্রয় করতে হবে। মেশিন ক্রয় করার সময় ওজন, উচ্চতা ও ক্যালরি একই মেশিনে মাপা যায় এমন মেশিন ক্রয় করতে হবে। বাজারে বিভিন্ন ব্যান্ডের মেশিন পাওয়া যায়। তারপর এই মেশিন দিয়ে লোক সমাগম হয় স্থানে গিয়ে গ্রাহকদের সেবা প্রদান করতে হয়। যত মানুষের ওজন ও উচ্চতা মাপতে আসবে তত বেশী আয় হবে। দেখতে ছোট হলে কম টাকা বিনিয়োগে ভালই লাভ পাওয়া যায়।

গ্রাহক: সাধারণত স্বাস্থ্য সচেতন ও নিয়মিত শরীরচর্চা করেন এমন মানুষরাই এই ব্যবসার ভোক্তা।

যোগ্যতা: বিশেষ কোন যোগ্যতার দরকার হয় না। এই ব্যবসাটি শুরু করতে মেশিন সম্পর্কে ধারণা থাকতে হবে।

সম্ভাব্য আয়: এই ব্যবসাটি শুরু করে প্রতিদিন গড়ে ৩০০ টাকা থেকে ৫০০ টাকা পর্যন্ত  আয় করা যায়। স্থান ভেদে কম বা বেশী হতে পারে।