উন্নয়ন ও স্বাভাবিক পরিবর্তনের মধ্যে পার্থক্য কি

উন্নয়ন ও স্বাভাবিক পরিবর্তনের মধ্যে পার্থক্য কি

উন্নয়ন ও স্বাভাবিক পরিবর্তনের মধ্যে পার্থক্য কি

উন্নয়ন ও স্বাভাবিক পরিবর্তনের মধ্যে পার্থক্য কি

উন্নয়ন কি – সাধারন চোখে যে কোন মানুষের কল্পিত আকাঙ্খা ও চাহিদার বাস্তব পরিবর্তনকে উন্নয়ন বলে। মানুষ যেভাবে যা ভাবে, যা পাওয়ার আকাঙ্খা করে; ঠিক তেমনি শতভাগ কখনই পূরণ হয় না। তবে আগের তুলনায় একটি পরিবর্তিত চেহারা উপস্থিত হয়।

উন্নয়নের সংজ্ঞা – কল্পিত রূপকে একটি নিদিষ্ট সময়ের ফ্রেমে এনে বাস্তবে রূপ দেয়া যায় তবে তাকেই উন্নয়ন বলা যেতে পারে।

আবার এই উন্নয়ন যদি স্বাভাবিক গতিতে হয় তবে তাকে উন্নয়ন বলা যাবে না। এই উন্নয়নকে স্বাভাবিক পরিবর্তন বলে।

প্রকৃত উন্নয়ন– কোন স্বাভাবিক পরিবর্তনকে যদি নির্ধারিত সময়ের মধ্যে রেখে, বিনিয়োগের তুলনায় প্রাপ্ত সম্পদের মান অধিক হারে পাওয়া যায়, তবে তাকে প্রকৃত উন্নয়ন বলে।

উন্নয়ন ও স্বাভাবিক পরিবর্তনের মধ্যে মুল পার্থক্য সময়। কেননা স্বাভাবিক পরিবর্তন ঘটে বা ঘটবেই, কিন্তু উন্নয়ন ঘটনোর জন্য আপনাকে একটি নিদিষ্ট সময়ের মধ্যে ঘটাতে হবে। ধরুন, আপনি যদি একটি গাড়ি কিনতে চান এবং তা আজ থেকে ৫ বছরের মধ্যে এবং আপনি যদি ৫ বছরের মধ্যে তা কিনতে পারেন তবে তাই উন্নয়ন। আপনি ১৫ বছর পর গাড়ি কিনতে পারলেন তবে তা উন্নয়ন নয়, তাকে আপনি স্বাভাবিক পরিবর্তন বলতে পারেন।

আবার অন্যদিকে কল্পিত আকাঙ্খার বাস্তব রূপকেও উন্নয়ন বলে। আপনি যেই বিষয়ে উন্নয়ন ঘটাতে চাচ্ছেন তার প্রতি আপনার যদি কোন কল্পিত আকাঙ্খা না থেকে থাকে তবে আপনি উন্নয়ন ঘটাতে পারবেন না।

স্বাভাবিক পরিবর্তন হিসাবে আপনি একটি গাড়ি কিনতে পারেন না, কেননা একটি গাড়ি কেনার পিছনে অনেক কল্পিত আকাঙ্খা থাকে। এই কল্পিত আকাঙ্খাকে যখন একটি সময়ের মধ্যে এনে তার বাস্তব প্রমান করতে পারবেন তাই উন্নয়ন।

তাই স্বাভাবিক পরিবর্তন ও উন্নয়ন সম্পূর্ণ আলাদা বিষয়, স্বাভাবিক পরিবর্তন সাধারনত সব সময় ঘটে বা ঘটবে, বা ঘটতে পারে, কিন্তু উন্নয়ন ঘটবে তবে একটি নিদিষ্ট সময়ের মধ্যে।