উন্নয়নের সূচক হিসাবে কি কি বিষয় রয়েছে

উন্নয়নের সূচক হিসাবে কি কি বিষয় রয়েছে

উন্নয়নের সূচক হিসাবে কি কি বিষয় রয়েছে

উন্নয়নের সূচক হিসাবে কি কি বিষয় রয়েছে

উন্নয়নের সূচক যাকে একদল অনেক গুরুত্ব প্রদান করে, ঠিক তেমনি অন্য একদল তেমন গুরুত্ব দেয় না। তাদের মতে উন্নয়নের সূচক হয় আলাদা। ফলে উন্নয়নের মাপকাঠি মাপার বিভিন্ন রকমের সূচক স্থান পেয়েছে।

এক সময়ে উন্নয়নের সূচক হিসেবে মনে করা হত মানুষের পুষ্টি, শিক্ষা, বাসস্থান, শিশু মৃত্যুর হার ইত্যাদি, যার ব্যাখ্যা দেওয়া তুলনা মূলক সহজ। এ সকল উন্নয়নের সাথে আরও যোগ হয়েছে- ন্যায্যতা, সমতা, মুক্তি, ও রাজনৈতিক কাঠামো যা নিন্মে ব্যাখ্যা করা হল।

উন্নয়নের সূচক – ন্যায্যতা

উন্নয়নের সূচক হিসাবে ন্যায্যতার ঊন্নয়ন যাচাই করা হয়। একটি দেশের বা জাতির সামাজিক, অর্থনৈতিক, ও রাজনৈতিক ক্ষেএে সে দেশের জনগন কতখানি ন্যায্যতা ভোগ করে। জনগন তার ন্যায্যতা ভোগ করতে পারছে কিনা, ন্যায় সঙ্গত অধিকার ভোগ করতে পারছে কিনা, এই সুচক দ্বারা তার পরিমান করা হয়।

যদি ন্যায্যতা ভোগের সুবিধা বাড়ে তাহলে বুজতে হবে সে দেশের উন্নয়ন বৃদ্ধি পাচ্ছে। আর যদি ন্যায্যতা ভোগের সুবিধা না বেড়ে থাকে তাহলে দিন দিন সে দেশের উন্নয়ন স্থবির হয়ে থাকবে। তাই উন্নয়নের সূচক হিসেবে ন্যায্যতা অনেক গুরুত্ব বহন করে।

সমতা

সমতা মানেই সবার জন্য সমান সুযোগ। সমতা সূচক দ্বারা দেখা হয় একটি দেশের বিভিন্ন বর্ণ, জাতি, উপজাতি, সহ বিভিন্ন গোষ্ঠী বিভক্ত মানুষের যে সমষ্টি থাকে তারা সবাই সমান সুযোগ পায় কিনা, একই কাজের জন্য একই মজুরী পায় কিনা।

একই ভাগে সম্পদ বন্টনের ক্ষেএে, ভোটাধিকার প্রয়োগ, বিচার লাভের ক্ষেএে সবাইকে সমান সুবিধা দেওয়া হয় কিনা। যদি তা হয়, বা দিন দিন বাড়ছে তাহলে প্রতিয়মান হয় যে, সে দেশের উন্নয়ন হচ্ছে।

মুক্তি

যে কোন বিষয়কে জানা ও বোঝার সুযোগ প্রদানের মাধ্যমে মানুষের আত্নমুক্তি আনয়ন করা যায়। বক্তব্য প্রকাশের, বিশ্বাস প্রকাশের, চিন্তার স্বাধীনতায় মানুষের মুক্তি নিরুপন করা যায়।

মুক্তি বা মানুষের স্বাধীনতা মূলত আত্নমুক্তি বা ব্যক্তি স্বাধীনতাকেই বুঝায়। ব্যাক্তির মুক্তি নিয়ন্ত্রিত হয় আইনের সুশাসনে।

একটি দেশের মানুষের এরুপ মুক্তি কতখানি বাড়ছে তার দ্বারাই সে দেশের উন্নয়ন হচ্ছে কিনা যাচাই করা করা হয়। তাই আইনের উদারতায় প্রতিটি মানুষ যেন মুক্তি লাভের সুযোগ পায়, তাই এই সূচকটি দায়িত্ব পালন করে।

রাজনৈতিক কাঠামো

উন্নয়নের এই সুচকের ব্যাখ্যা এই যে, একটি দেশ তার সার্বভৌমত্ব রক্ষার কতখানি সুযোগ পাচ্ছে, দেশে গনতন্ত্র আছে কিনা, সবাই যার যার ধর্ম পালন করতে পারছে কিনা।

একটি দেশ পরিচালনার ক্ষেএে এ চারটি বিষয় যত স্বচ্ছ ও সাবলীল গতিতে সে দেশের জনগনের মধ্যে বিশ্লেষিত হয় বাস্তবায়ন হয়, সে দেশকে তত বেশী উন্নত মনে করা হয়।

উন্নয়শীল দেশগুলির জন্য আরও যে সকল বিষয়ের প্রতি দৃষ্টি দানের লক্ষ্যে সূচক নির্ধারণ করা হয়েছে। তার মধ্যে রয়েছে মহিলা উন্নয়ন ও পরিবেশ সংরক্ষণ।

আজকের বিশ্বকে দুই ভাগে ভাগ করা যায়। উন্নত ও উন্নয়নশীল দেশ। ব্রিটিশ উপনিবেশিকতা মুক্ত এশিয়া, আফ্রিকা, ও ল্যাটিন আমেরিকা এই সকল উন্নয়নশীন দেশের উন্নয়নের জন্য বিভিন্ন দিক থেকে সহায়তা করা হয়। উন্নয়নশীল দেশগুলিও উন্নয়নের নিক্তি, পরিমাপক, সূচক হিসেবে নির্ধারিত, বিভিন্ন দিকসমূহের উন্নতির জন্য নিজ নিজ দেশজ ধারায় উন্নয়নমুখী প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে।