উদ্যোক্তা হওয়ার ৬টি পূর্বশর্ত

উদ্যোক্তা হওয়ার ৬টি পূর্বশর্ত

উদ্যোক্তা হওয়ার ৬টি পূর্বশর্ত

উদ্যোক্তা হতে চাইলে আপনাকে প্রথমেই মানতে হবে, উদ্যোক্তা এবং ব্যবসায়ী সম্পূর্ণ আলাদা দুই ব্যক্তি। একজন উদ্যোক্তা ব্যবসায়ী হতে পারে কিন্তু একজন ব্যবসায়ী উদ্যোক্তা হতে পারে না। এছাড়া উদ্যোক্তা হওয়া যথেষ্ট কঠিন এবং ব্যবসায়ী হওয়া তুলনামূলক সহজ। আজকের এই আর্টিকেলে আমি আপনার সাথে উদ্যোক্তা হওয়ার ৬টি পূর্বশর্ত শেয়ার করার ইচ্ছা প্রকাশ করছি।

#১। উদ্যোক্তা হতে চাইলে উদ্যোক্তার গুণাবলী অর্জন করতে হবে।

একজন সফল উদ্যোক্তা অনেক গুনে গুণান্বিত। তবে কিছু গুণাবলী প্রায় সকল উদ্যোক্তা মধ্যে থাকে। আপনাকে সর্ব প্রথম ঐ সকল গুণাবলী অর্জন করতে হবে। যেমন, শৃঙ্খলা, কাজের প্রতি আবেগ, নিজের দক্ষতার প্রতি বিশ্বাস এবং সমস্যা সমাধানের দক্ষতা।

#২। প্ল্যান করে কাজ করা।

একজন উদ্যোক্তাকে যথেষ্ট ঝুঁকি নিতে হয়। এই ঝুঁকির মধ্যে রয়েছে শারীরিক, মানসিক এবং আর্থিক ঝুঁকি। সাধারনত যখন একজন উদ্যোক্তা যখন ঝুঁকি নেয় তখন সে তার প্ল্যান অনুযায়ী ঝুঁকি গ্রহন করে। একজন উদ্যোক্তা যখন নিজের আইডিয়া বাজারে প্রতিষ্ঠা করতে চায় তখন তিনি সব সময় লিখিত বিজনেস প্ল্যানে গুরুত্ব দেয়।

#৩। নেটওয়ার্ক বাড়াতে হবে।

নিজের দ্বারা সবকিছু করা বা সবকিছু জানা প্রায় অসম্ভব। উদ্যোক্তা হতে চাইলে আপনাকে প্রতিনিয়ত নতুন নতুন মানুষদের সাথে সম্পর্ক গড়ে তুলতে হবে। আপনি যেই সেক্টরে নিজের ব্যবসা প্রতিষ্ঠা করতে চাচ্ছেন সেই সেক্টরে অন্য কে বা কারা ব্যবসা করছে তাদের সাথে সু- সম্পর্ক গড়ে তুলতে হবে।

#৪। নিজেকে উন্নত করার মনোভাব থাকতে হবে।

আপনাকে সব সময় মানতে হবে আপনি আপনার ব্যবসায় সকল কিছু জানেন না, কিন্তু নিজেকে উন্নত করতে চান। আপনাকে কমফোর্ট জোন ছাড়তে হবে এবং নতুনত্বকে গ্রহন করতে হবে। সময়ের সাথে সাথে ব্যবসাকে পরিবর্তন করতে হবে।

আপনাকে প্রশ্ন জিজ্ঞাসা করতে হবে, উত্তর শোনার আগ্রহ থাকতে হবে। অন্যের মতামতকে গুরুত্ব দিতে হবে, অন্যের কাছ থেকে পরামর্শ নিতে হবে কিন্তু সিদ্ধান্ত নিজেকেই নিতে হবে।

#৫। সময় ব্যবস্থাপনা শিখতে হবে।

সময় ব্যবস্থাপনা একটি দক্ষতা যা একজন উদ্যোক্তা সব সময় সবার থেকে ভালো করতে পারে। আপনাকে অনেক সময় ক্ষেএ বিশেষ টাকার চেয়েও সময়কে গুরুত্ব দিতে হবে। ব্যবসার সকল কাজ নিজে না করে, যে যেই কাজে দক্ষ তাকে সেই কাজে লাগাতে হবে।

#৬। হিসাব করতে জানতে হবে।

বিষয়টা খুব সাধারন মনে হলেও আপনাকে হিসাব করতে জানতে হবে। আপনার ব্যবসায় সকল আয় ব্যয় আপনাকে লিখিত আকারে রাখতে হবে। এছাড়া আপনি যেই ব্যবসা করতে চাচ্ছেন সেই ব্যবসার Business Tax সম্পর্কে পূর্ণ ধারনা নিতে হবে। – কে এম চিশতি সিয়াম – ইউটিউব লিঙ্ক