যে ৫টি কথা যা উদ্যোক্তারা কখনোই সাংবাদিকদের বলবেন না

উদ্যোক্তারা কখনোই সাংবাদিকদের ৫টি কথা বলবেন না

৫টি কথা যা উদ্যোক্তারা কখনোই সাংবাদিকদের বলবেন না

৫টি কথা যা উদ্যোক্তারা কখনোই সাংবাদিকদের বলবেন না

ভুল শুদ্ধ মিলেই মানুষের জীবন। ভুল থেকেই মানুষ শুদ্ধতাকে শিখতে পারে। কিছু কিছু ভুল থেকে আপনি চাইলেই নিজেকে শুধরে নিতে পারেন। আবার কিছু ভুল আপনি চাইলেও ঠিক করতে পারবেন না। আপনি যখন একজন উদ্যোক্তা হিসেবে ব্যবসা শুরু করবেন তখন আপনাকে বিভিন্ন সাংবাদিকের মুখোমুখি হতে হবে। আর এই ক্ষেত্রে আপনাকে অবশ্যই কিছু সতর্কতা অবলম্বন করতে হবে। কেননা আপনার প্রতিটি কথাই সংবাদপত্রে মুদ্রিত হবে যা আজীবন অমর থাকবে। তাই সেই সম্ভাবনা প্রত্যেক উদ্যোক্তা বা প্রতিষ্ঠাতার জন্য কঠিন হতে পারে। তাই এখানে ৫ টি কথা আছে যেই গুলো না বলেও আপনি গণমাধ্যমের সাথে আপনার সম্পর্ক ভাল রাখতে পারবেন। নিচে তা আলোচনা করা হলো।

এটা লিখলে আমি আপনাকে টাকা পরিশোধ করবে

সাংবাদিকরা আপনার ব্যবসা সম্পর্কে বিভিন্ন পত্রিকায় লিখতেই পারেন। মনে করুন আপনি একটি ব্যবসা শুরু করতে যাচ্ছেন অথবা আপনার কোম্পানীতে নতুন কিছু প্রয়োগ, নিয়োগ করতে চাচ্ছেন। আর সমস্ত কাজটি করার জন্য আপনি আকর্ষনীয় গল্প তৈরী করতে আগ্রহী। এক্ষেত্রে আপনাকে সাংবাদিকদের সাথে নৈতিক আচরণ করতে হবে। আর আপনি অবশ্যই তাদেরকে এই কাজের বিনিময়ে সরাসরি টাকা দিবেন এই কথা বলতে পারেন না। গণমাধ্যমকে আপনি শুধু একটি যোগাযোগ মাধ্যমই না। এটা আপনার বাজারের সুনাম বৃদ্ধি করার জন্য অনন্য উপায় হতে পারে। তাছাড়া আপনাকে অত্যন্ত গুরুত্বের সহিত আপনার ব্যবসার বিজ্ঞাপন বা স্পন্সর গুলো প্রকাশ করার জন্য গণমাধ্যমের সাথে যোগাযোগ করতে হবে।

প্রকাশ করার আগে আপনাকে একবার এটি পর্যালোচনা করতে হবে

যখন সাংবাদিকের সাথে আপনার সকল ধরনের আলোচনা সমাপ্ত হয়ে যাবে এবং আপনার সম্পর্কে সকল তথ্য লিখা তাদের শেষ হয়ে যাবে তখন সমস্ত ফলাফলের উপর আপনার কোন নিয়ন্ত্রন থাকবে না। কিন্তু মাঝে মাঝে আপনি আপনার প্রতিবেদন শুদ্ধতার জন্য আপনি এটিকে পর্যবেক্ষন করতে পারেন। যদি কোন রকমের ভুল হয়ে থাকে তাহলে আপনি তা ঠিক করার জন্য নানা উপায় খুঁজতে থাকুন। দরকার হলে তাদেরকে আপনি বিনীত অনুরোধ করতে পারেন। কিন্তু অনেক সময় দেখা যায় অনেক সাংবাদিকরা তাদের নোট গুলো শুদ্ধ করার জন্য যাচাই করে। আপনি চাইলে ঐ সময়েও আপনারে ভুল গুলো শুদ্ধ করতে পারেন।

দয়া করে আপনি এটা আটকে রাখেন অথবা দু:খিত! আরেক দিন হবে

সাংবাদিকদের সামনে পিছনে যাই ঘটুক না কেন সমস্ত খবর প্রকাশ করতে তারা দ্বিতীয় বার পিছায় না। বরং তারা আরও নতুন তথ্য সংগ্রহ করতে আগ্রহ প্রকাশ করে। তারা কোন রকম চাপে পরে তাদের খবর প্রকাশ থেকে বিরত থাকে না। তাই আপনাকে যদি কোন সাংবাদিক আপনার পন্য সম্পর্কে কোন প্রশ্ন জিজ্ঞাসা করে তাহলে আপনাকে সঠিক তথ্য প্রদান করতে হবে। আর যদি আপনি উত্তর দিতে প্রস্তুত না থাকেন তাহলে আপনি আপনার অফিসে তাদেরকে অন্যদিন আমন্ত্রন জানাতে পারেন। সাংবাদিকের সাথে আপনি আপনার পন্যের সকল তথ্য এমন ভাবে পেশ করতে পারেন যাতে এই দিনটির জন্য আপনাকে ভবিষ্যতে কোন অনুতপ্ত না হতে হয়।

এই রেকর্ড বন্ধ করুন

আপনাকে মনে রাখতে হবে আপনি যা বলছেন তার সবই রেকর্ড হচ্ছে। আর তা বাজারে আপনার সুনাম হ্রাস বা বৃদ্ধি করতে পারে। তাই আপনার উচিত হবে আপনি যা বলবেন তা যেন ন্যায় সঙ্গত হয়। সকলে যাতে আপনার রেকর্ড বিশ^াস করতে পারে সে বিবেচনায় আপনাকে প্রতিটি কথা বলতে হবে। তাই আপনাকে আগেই থেকেই নিশ্চিত করতে হবে আপনি কি বলবেন। শ্রোতাদের মনে যাতে কোন রকম বিরক্তি না আসে সেই দিকেও আপনাকে খেয়াল রাখতে হবে। মনে রাখবেন আপনি যা বলছেন তা আপনার জন্য অনেক বিরোধ বা পক্ষের সৃষ্টি করতে পারে। তাই আপনাকে অধিক সতর্ক হয়ে কথোপকথনের রেকর্ডিং এর কাজ সম্পন্ন করতে হবে। ব্যবসার আইডিয়াঃ স্বল্প পুজিঁর কিছু সহজ ব্যবসার ধারণা

কোন দুর্বল দিক না বের করতে পারে

সাংবাদিকরা অনেক সময় তাদের কাজের সুবিধার্থে অনেক লোকের সাক্ষাতকার গ্রহণ করে থাকে। আপনার পন্য বা ব্যবসা সম্পর্কে তাদের প্রতিক্রিয়া কি তারা তা একটি গল্পের মাধ্যমে প্রকাশ করতে চায়। দুর্ভাগ্যবশত তারা যদি আপনার পন্য সম্পর্কে কোন নেতিবাচক তথ্য পেশ করে তাহলে বাজারে আপনার সুনাম হ্রাস পেতে থাকবে। তাই আপনাকে হতাশ হলে হবে না। আপনাকে নিয়ে তাদের নিবন্ধে যাতে কোন রকম ভুল না আসে বা তারা যাতে আপনার কোন দুর্বল দিক না বের করতে পারে তার ব্যবস্থা করতে হবে।