ঘনবসতিপূর্ণ আবাসিক এলাকায় কোন ব্যবসা শুরু করা যায়

ঘনবসতিপূর্ণ আবাসিক এলাকায় কোন ব্যবসা শুরু করা যায়

আবাসিক এলাকায় কোন ব্যবসা

আবাসিক এলাকায় কোন ব্যবসা

আপনি যেই এলাকায় ব্যবসা শুরু করতে চান না কেন, আপনাকে সবার আগে কোন সমস্যা খুঁজতে হবে। সমস্যা খুঁজে পেলে তার সমাধান দেওয়ার জন্য আপনি ব্যবসা শুরু করতে পারেন। এতে ব্যবসায় সফল হওয়ার সম্ভাবনা বেশী থাকবে।

ঘনবসতিপূর্ণ আবাসিক এলাকায় অনেক ধরনের ব্যবসা শুরু করা যেতে পারে। অবস্থান, চাহিদা, সহজলভ্যতা ইত্যাদির উপর নির্ভর করে আপনি ব্যবসা ঠিক করতে পারেন।

ঘনবসতিপূর্ণ আবাসিক এলাকায় উৎপাদনমুখী ব্যবসা ছাড়া সকল ব্যবসার বেশ চাহিদা রয়েছে। এর মধ্যে যেই সকল ব্যবসায় লাভ ও চাহিদা বেশী সেই সকল ব্যবসার ধারনা তুলে ধরার চেষ্টা করছি।

#১ মুদি দোকান

মুদি দোকানের চাহিদা সব সময় বেশী। একটি মুদি দোকানে সাধারনত খাদ্য সাম্রগী থেকে শুরু করতে প্রসাধনী পণ্য পর্যন্ত পাওয়া যায়। সঠিক স্থান ও গ্রাহকের সাথে ভাল ব্যবহার এর ব্যবসার মূল মন্ত্র।

পড়ুন – একটি মুদি দোকান থেকে ১ লাখ টাকা আয় করা যায়।

#২ লন্ড্রি ব্যবসা

লন্ড্রি দোকান একটি সেবা ভিত্তিক ব্যবসা। ঘনবসতিপূর্ণ আবাসিক এলাকায় এই ব্যবসা বেশ জমজমাট। আপনার এলাকায় হয়ত ইতি পূর্বে লন্ড্রি দোকান রয়েছে, যদি না থাকে তাহলে আপনি শুরু করতে পারেন এই ব্যবসা। যদিও থেকে থাকে তাহলে চাহিদা বুজে শুরু করতে পারেন। কম বিনিয়োগে এই ব্যবসায় বেশ লাভ করা যায়। অধিক গ্রাহক পেতে হোম ডেলিভারি লন্ড্রি ব্যবসা শুরু করতে পারেন।

#৩ সেলুন ব্যবসা

অন্যতম প্রচালিত ও সফল ব্যবসার নাম সেলুন ব্যবসা। এই ব্যবসাটি সাধারন একটি ব্যবসা মনে হলেও লাভের পরিমাণ নেহাত কম না। এক ব্যবসায় মূল চ্যালেঞ্জ কারিগর (যে চুল কাটবে) ধরে রাখা। এই সমস্যা মিটাতে পারলে আপনার ব্যবসা হবে বেশ জমজমাট।

#৪ পেইন্টিং ব্যবসা

এটি একটি শারীরিক শ্রমের কাজ। এই কাজের চাহিদা সারা বছর লেগেই থাকে। আপনি চাইলে একটি পেইন্টিং ব্যবসার এজেন্সি খুলতে পারেন। গ্রাহক আপনার কাছে আসবে তাদের বাসা-বাড়ি রঙ করানোর জন্য এবং আপনি মানুষ দিয়ে তাদের বাসা বাড়ি রঙ করিয়ে দিবেন। ঘনবসতিপূর্ণ আবাসিক এলাকায় পেইন্টিং এজেন্সি হতে পারে একটি লাভজনক ব্যবসা।

#৫ স্টেশনারি-মোবাইল ব্যাংকিং-মোবাইল রিচার্জ

ঘনবসতিপূর্ণ আবাসিক এলাকায় শুরু করুন স্টেশনারি ব্যবসা। স্টেশনারি পণ্যের পাশাপাশি মোবাইল ব্যাংকিং (বিকাশ, রকেট) ও মোবাইল রিচার্জ ব্যবসা করতে পারেন।

#৬ ফার্মেসী দোকান

অল্প মূলধন দিয়ে শুরু করা যায় এবং ঝুঁকির পরিমানও কম থাকে এই ব্যবসায়। যেকোন আবাসিক এলাকায় ফার্মেসী দোকান খুব ভাল চলে। ভাল ব্যবহার ও ন্যায্য মূল্য এই ব্যবসার মূল চাবিকাঠি।